সংস্কৃতিকর্মী ও লোকশিল্পীদের জন্য ৫০কোটি টাকা অনুদান দাবী

করোনাভাইরাসের কারণে আমাদের জাতীয় জীবনে যে সংকট এসেছে তার মুখোমুখি আজ সংস্কৃতিকর্মী এবং লোকশিল্পীগনও আছেন। তাদের আয়ের পথ আরো রুদ্ধ। তাদের জন্য প্রণোদনা চেয়ে প্রধানমন্ত্রী বরাবর আবেদন জানিয়ে জাতীয় ভিত্তিক সাংস্কৃতিক সংগঠন সমূহ একটি যৌথ বিবৃতি দিয়েছে।

যৌথ বিবৃতি-

আমরা সকলেই জানি যে, এদেশের সংস্কৃতিকর্মীরা প্রধানত সমাজের প্রতি দায়বদ্ধতা থেকেই সংস্কৃতি চর্চা করে থাকে। স্বাধীনতা উত্তর বাংলাদেশে আজ কয়েক হাজার সাংস্কৃতিক সংগঠন নিজ নিজ অবস্থান থেকে সংস্কৃতি চর্চায় নিয়োজিত রয়েছে। এ সমস্ত দলের অধিকাংশ সদস্যই ছোট চাকুরি, ব্যবসা, টিউশনি করে জীবিকা নির্বাহ করে- আবার অনেকে রয়েছে ছাত্র এবং বেকার। করোনা সংকটের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে এই পরিবারগুলো ব্যাপক আর্থিক অনটনের মধ্যে দিনযাপন করছে। অপরদিকে বাংলাদেশের গ্রামে-গঞ্জে ছড়িয়ে থাকা হাজার হাজার লোকশিল্পী অস্থিত্বের সংকটে নিমজ্জিত। এমনই পরিস্থিতিতে দেশের সাংস্কৃতিক অঙ্গন মহাসংকটের মুখোমুখি।পরিস্থিতি মোকাবেলায় জরুরি ভিত্তিতে তিনটি দাবী পূরণের জন্য আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট উদাত্ত আহবান জানাচ্ছি।

দাবীগুলো হচ্ছে :

১. আপদকালীন পরিস্থিতি বিবেচনায় অসচ্ছল সদস্যদের সহায়তার জন্য প্রত্যেক সাংস্কৃতিক সংগঠনের নামে পূর্বের নির্ধারিত আর্থিক বরাদ্দের অর্থ দ্বিগুন করে প্রদান করা হোক।

২. তালিকাভূক্ত অসচ্ছল শিল্পীদের প্রত্যেকের নামে বাৎসরিক বরাদ্দ দ্বিগুণ প্রদান করা হোক।

৩. দেশব্যাপী ছড়িয়ে থাকা হাজার হাজার লোকশিল্পীদের তালিকা শিল্পকলা একাডেমীর মাধ্যমে প্রণয়ন করে তাদের প্রত্যেককে এককালীন নূন্যতম ৫ হাজার টাকা করে অনুদান প্রদান করা হোক। সার্বিক সংকট মোকাবেলায় উপরিউক্ত খাতে ৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ প্রদানের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিকট উদাত্ত আহবান জানাই।

বিবৃতিদাতাগন হলেন –

গোলাম কুদ্দুছ – সভাপতি, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট।
হাসান আরিফ – সাধারণ সম্পাদক, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট।
লিয়াকত আলী লাকী – চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশান।
কামাল বায়েজীদ – সেক্রেটারি জেনারেল, বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশান।
আসাদুজ্জামান নূর, এমপি – সভাপতি, বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদ।
আহকামউল্লাহ – সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদ।
ড. মুহাম্মদ সামাদ – সভাপতি, জাতীয় কবিতা পরিষদ।
তারিক সুজাত – সাধারণ সম্পাদক, জাতীয় কবিতা পরিষদ।
মান্নান হীরা – সভাপতি, বাংলাদেশ পথনাটক পরিষদ।
আহাম্মেদ গিয়াস – সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ পথনাটক পরিষদ।
ফকির আলমগীর – সভাপতি, বাংলাদেশ গণসঙ্গীত সমন্বয় পরিষদ।
মানজারুল ইসলাম চৌধুরী সুইট – সাঃ সম্পাদক, বাংলাদেশ গণসঙ্গীত সমন্বয় পরিষদ।
মিনু হক – সভাপতি, বাংলাদেশ নৃত্যশিল্পী সংস্থা।
শেখ মাহফুজুর রহমান – সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ নৃত্যশিল্পী সংস্থা।
জামাল আহমেদ – সভাপতি, বাংলাদেশ চারুশিল্পী সংসদ।
কামাল পাশা চৌধুরী – সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ চারুশিল্পী সংসদ।
নাসির উদ্দিন ইউসুফ – সভাপতি, আইটিআই বাংলাদেশ কেন্দ্র।
দেবপ্রসাদ দেবনাথ – সাধারণ সম্পাদক, আইটিআই বাংলাদেশ কেন্দ্র।

Check Also

৩০ মে পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ

করোনা ভাইরাসের কারণে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটির মেয়াদ ৩০ মে পর্যন্ত নির্ধারণ করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *