Warning: Cannot modify header information - headers already sent by (output started at /home/mediakh/public_html/index.php:6) in /home/mediakh/public_html/wp-includes/feed-rss2.php on line 8
নিবন্ধ – মিডিয়া খবর https://www.mediakhabor.com know culture & heritage of Bangladesh Mon, 21 Dec 2020 17:10:36 +0000 en-US hourly 1 https://wordpress.org/?v=5.7.1 https://www.mediakhabor.com/wp-content/uploads/2020/03/cropped-ICON-3-32x32.jpg নিবন্ধ – মিডিয়া খবর https://www.mediakhabor.com 32 32 বঙ্গবন্ধুর জন্য ভালবাসা https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%ac%e0%a6%99%e0%a7%8d%e0%a6%97%e0%a6%ac%e0%a6%a8%e0%a7%8d%e0%a6%a7%e0%a7%81%e0%a6%b0-%e0%a6%9c%e0%a6%a8%e0%a7%8d%e0%a6%af-%e0%a6%ad%e0%a6%be%e0%a6%b2%e0%a6%ac%e0%a6%be%e0%a6%b8%e0%a6%be/ https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%ac%e0%a6%99%e0%a7%8d%e0%a6%97%e0%a6%ac%e0%a6%a8%e0%a7%8d%e0%a6%a7%e0%a7%81%e0%a6%b0-%e0%a6%9c%e0%a6%a8%e0%a7%8d%e0%a6%af-%e0%a6%ad%e0%a6%be%e0%a6%b2%e0%a6%ac%e0%a6%be%e0%a6%b8%e0%a6%be/#respond Mon, 17 Aug 2020 00:20:48 +0000 https://www.mediakhabor.com/?p=1740 জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রবিবার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের স্মরণসভায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অংশগ্রহণ করে সভাপতির বক্তব্যে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন আসুন আমরা এই বলে প্রতিজ্ঞা করি, পিতা তোমায় কথা দিলাম, তোমার বাংলার দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটাব। এই বাংলার মানুষ যেন উন্নত জীবন পায় এবং বিশ্বদরবারে মাথা উঁচু করে …

The post বঙ্গবন্ধুর জন্য ভালবাসা appeared first on মিডিয়া খবর.

]]>
জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রবিবার বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের স্মরণসভায় গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অংশগ্রহণ করে সভাপতির বক্তব্যে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন আসুন আমরা এই বলে প্রতিজ্ঞা করি, পিতা তোমায় কথা দিলাম, তোমার বাংলার দুঃখী মানুষের মুখে হাসি ফোটাব। এই বাংলার মানুষ যেন উন্নত জীবন পায় এবং বিশ্বদরবারে মাথা উঁচু করে চলতে পারে, সেই ব্যবস্থা আমরা করব। তুমি যে স্বপ্ন দেখেছিলে, তা বাস্তবায়ন করব।’

তিনি জিয়া ও খালেদা জিয়ার সমালোচনা করে বলেন, ‘জিয়া ক্ষমতায় থাকতে যা করে গেছে খালেদা জিয়াও ঠিক একই কাজ করেছে। বঙ্গবন্ধু হত্যার পেছনে জিয়ার ইন্দন ছিল। কর্নেল ফারুক তার ইন্টারভিউতে এ কথা স্বীকার করেছে। খন্দকার মোশতাক রাষ্ট্রপতি হওয়ার পর জিয়াকে সেনাপ্রধান করল। খুনি-বেঈমান মোশতাক তিন মাসও ক্ষমতায় থাকতে পারেনি। এটা কেন করেছে, তা সবাই বুঝতে পারে।’

তিনি বলেন, ‘জিয়াউর রহমান মুক্তিযোদ্ধা ছিলেন কিন্তু মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন পাকিস্তানি সামরিক বাহিনীর সঙ্গে তার সংযোগ ছিল, আঁতাত ছিল। খুনিদের বিদেশে চাকরি দিয়েছেন, তাদের রাজনীতি করার সুযোগ করে দিয়েছেন। জিয়া ক্ষমতায় এসে হাজার হাজার সৈনিক ও আর্মি অফিসারকে হত্যা করেছেন। কেউ কোনো প্রতিবাদ করতে পারেনি। কেউ যদি প্রতিবাদ করত, তাকে আর জীবিত পাওয়া যেত না। প্রতিবাদ করার সঙ্গে সঙ্গে সাদা গাড়ি এসে তাকে তুলে নিয়ে যেত। এভাবে জিয়াউর রহমান এই দেশে খুনের রাজত্ব কায়েম করেছিলেন। বেগম খালেদা জিয়াও ১৫ ফেব্রুয়ারির নির্বাচনে খুনি কর্নেল রশিদ ও হুদাকে নির্বাচিত করে এনেছিল। রশিদকে তিনি বিরোধী দলের চেয়ারে বসিয়েছিলেন। এছাড়া খালেদা জিয়া অপারেশন ক্লিনহার্টের নামে কত মানুষকে হত্যা করেছে, শত শত মানুষকে নির্বিচারে হত্যা করেছে। খালেদার শাসনামলেও রাজনীতি করার মতো কোনো পরিস্থিতি ছিল না। তিনিও এসব হত্যার ইনডেমনিটি দিয়ে গেছে। এসব হত্যার বিচার করা যাবে না। এভাবে জিয়া এবং তার স্ত্রী এ দেশে খুনের রাজত্ব কায়েম করেছিলেন।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর থেকে এ দেশের মানুষ শান্তি পেয়েছে। আওয়ামী লীগ এ দেশের মানুষের জন্য অনেক কিছু করেছে। আমাদের অনেক আশা ছিল, আমরা মুজিববর্ষকে অনাড়ম্বরভাবে উদযাপন করব কিন্তু করোনাভাইরাসের কারণে তা সম্ভব হয়নি। দলীয় হাজার হাজার নেতাকর্মী মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। তাদের সাহায্য-সহযোগিতা করেছে। করোনাভাইরাসের এই সময়ে মানুষকে সাহায্য-সহযোগিতা করতে গিয়ে আমাদের আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মী আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন।’

তিনি বলেন, আমরা বৃক্ষরোপণের যে কর্মসূচি ঘোষণা করেছি, মুজিববর্ষে এ কর্মসূচি আমাদের অব্যাহত থাকবে। এছাড়া এ দেশের একটা মানুষও গৃহহীন থাকবে না, প্রত্যেকটা মানুষ যেন তার বাসস্থান পায় সে ব্যবস্থা করতে হবে। তিনি বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য দলীয় নেতাকর্মীদের প্রতি আহবান জানান।

The post বঙ্গবন্ধুর জন্য ভালবাসা appeared first on মিডিয়া খবর.

]]>
https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%ac%e0%a6%99%e0%a7%8d%e0%a6%97%e0%a6%ac%e0%a6%a8%e0%a7%8d%e0%a6%a7%e0%a7%81%e0%a6%b0-%e0%a6%9c%e0%a6%a8%e0%a7%8d%e0%a6%af-%e0%a6%ad%e0%a6%be%e0%a6%b2%e0%a6%ac%e0%a6%be%e0%a6%b8%e0%a6%be/feed/ 0
এই সময়ে শিশুর যত্ন নিন https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%8f%e0%a6%87-%e0%a6%b8%e0%a6%ae%e0%a7%9f%e0%a7%87-%e0%a6%b6%e0%a6%bf%e0%a6%b6%e0%a7%81%e0%a6%b0-%e0%a6%af%e0%a6%a4%e0%a7%8d%e0%a6%a8-%e0%a6%a8%e0%a6%bf%e0%a6%a8/ https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%8f%e0%a6%87-%e0%a6%b8%e0%a6%ae%e0%a7%9f%e0%a7%87-%e0%a6%b6%e0%a6%bf%e0%a6%b6%e0%a7%81%e0%a6%b0-%e0%a6%af%e0%a6%a4%e0%a7%8d%e0%a6%a8-%e0%a6%a8%e0%a6%bf%e0%a6%a8/#respond Thu, 23 Apr 2020 11:41:00 +0000 https://www.mediakhabor.com/?p=1654 অস্বস্তিকর আবহাওয়া বিরাজ করছে, শুরু হচ্ছে ভ্যাপসা গরমের দিন।কখনোবা হঠাৎ নামছে বৃষ্টি। এই আবহাওয়ায় নিজেকে খাপ খাইয়ে নিতে কত কষ্ট হয় সকলের। শিশুদের প্রতি ভালভাবে যত্ন নেয়া প্রয়োজন। বড়দেরই বুঝতে হবে শিশৃদেরকখন কি প্রয়োজন। করোনার সময়ে এই গরমের দিনে কীভাবে আপনার শিশুকে সাহায্য করবেন খাপ খাইয়ে নিতে জেনে নিন। ১. মহামারী বা দুর্দশার সময়ে শিশুর …

The post এই সময়ে শিশুর যত্ন নিন appeared first on মিডিয়া খবর.

]]>
অস্বস্তিকর আবহাওয়া বিরাজ করছে, শুরু হচ্ছে ভ্যাপসা গরমের দিন।কখনোবা হঠাৎ নামছে বৃষ্টি। এই আবহাওয়ায় নিজেকে খাপ খাইয়ে নিতে কত কষ্ট হয় সকলের। শিশুদের প্রতি ভালভাবে যত্ন নেয়া প্রয়োজন। বড়দেরই বুঝতে হবে শিশৃদেরকখন কি প্রয়োজন। করোনার সময়ে এই গরমের দিনে কীভাবে আপনার শিশুকে সাহায্য করবেন খাপ খাইয়ে নিতে জেনে নিন।

১. মহামারী বা দুর্দশার সময়ে শিশুর দুশ্চিন্তা বেড়ে যায়। সে বিভিন্নভাবে পারিপার্শি্বক অবস্থার সাথে খাপ খাওয়ানোর চেষ্টা করে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই খাপ খাওয়াতে ব্যর্থ হয়। ফলে তাদের মধ্যে উদ্বিগ্নতা, অতিরিক্ত রাগ, পরিবারের সদস্যদের থেকে নিজেকে লুকিয়ে রাখা, সারাক্ষণ নিশ্চুপ থাকা ইত্যাদি প্রবণতা বেড়ে যায়। তাই এ সময়ে আপনার শিশুর প্রতিক্রিয়াগুলোকে সহজভাবে নিয়ে তার কথাগুলো মনোযোগ সহকারে শুনুন এবং যথাসম্ভব বেশি বেশি আদর করুন। তার দিকে একটু বেশি মনোযোগ দিন। যাতে সহজেই সে পরিস্থিতির সাথে মানিয়ে নিতে পারে।

২. কঠিন সময়গুলোতে শিশুদের প্রচুর সময় দিন এবং ভালোবাসুন। নরমভাবে কথা বলুন এবং তাদের পুনরায় নিশ্চিত করুন যে, সবকিছু ঠিক হয়ে যাবে। যদি সম্ভব হয় শিশুদের জন্য খেলাধুলার ব্যবস্থা করুন।

৩. আপনার শিশুকে সবসময় আপনার কাছে রাখুন। কখনোই পরিবার থেকে আলাদা রাখবেন না। যদি আলাদা রাখতে হয় (হাসপাতালে থাকলে), তাহলে তার সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখুন।

৪. প্রতিদিন রুটিন মাফিক খেলাধুলা, পড়াশোনা বা বিনোদনের ব্যবস্থা করুন।

৫. বর্তমান পরিস্থিতি সম্পর্কে তাদের বোঝানোর চেষ্টা করুন। কিভাবে তারা এ রোগ প্রতিরোধ করতে পারে। এ ব্যাপারে তাদের করণীয় সম্পর্কে বারবার বোঝানোর চেষ্টা করুন। দরকার হলে নিজে করে দেখান।

৬. শিশুদের মানসিক অবস্থা ভালো রাখতে সব সময় তৎপর থাকুন। কেননা যেকোনো শিশুর মানসিক অবস্থার অবনতি জীবনে ভয়াবহ পরিস্থিতি ডেকে আনতে পারে। তাই মহামারীর সময়ে নিজেরা সচেতন থাকুন। শিশুদের দিকেও বাড়তি মনোযোগ দিন।

কয়েকটা বিষয় খেয়াল করা জরুরী

এসি বা ফ্যান

শিশুর জন্য সবচেয়ে আরামদায়ক হয় এসি বা এয়ার কন্ডিশনার। তা না সম্ভব হলে ফ্যান সচল রাখুন শিশুর যত্ন নিতে। শুধু খেয়াল রাখবেন তাপমাত্রা এবং হিউমিডিটি যেন ঠিকমত নিয়ন্ত্রণে থাকে।

জানালা খোলা রাখুন

আপনার ঘরের জানালা খোলা রাখুন। এতে করে ঘরে সারাক্ষণ বাতাস চলাচল হবে। গুমোট আবহাওয়া তৈরি হবে না। তবে সন্ধ্যার আগে অবশ্যই জানালা লাগিয়ে দিন। এটি নির্ভর করে আপনি কোন এলাকায় বসবাস করছে এবং সেখানে মশার সংক্রমণ কেমন। সেই অনুযায়ী বন্ধ করে দিয়ে ঘন্টাখানেক পর খুলে দেবেন।

গোসল

গরমে হাঁপিয়ে উঠে আমরা যেমন বার বার গোসল করি তেমনি আপনার শিশুকেও দিনে অন্তত ২ বার গোসল করান। এছাড়া মাঝে মাঝে ঠান্ডা পানিতে কাপড় ভিজিয়ে গা মুছিয়ে দিন। এতে শিশু বেশ আরাম পাবে। তবে কখনো গোসলের পর শিশুর গায়ের পানি পুরোপুরি শুকনো করে মুছে দেবেন না। হালকা ভেজাভাব তাকে অতিরিক্ত গরমের সাথে মানিয়ে নিতে সাহায্য করে।

পানি

গরমের সাথে মানিয়ে নিতে শরীরে পর্যাপ্ত পানি থাকা খুবই জরুরি। শিশু যতই বিছানায় থাকুক, তারও গরম লাগে, ঘাম হয়। তাই তাকে প্রচুর পরিমাণে পানি পান করান। শুধু পানির বদলে পানি জাতীয় খাবার দিতে পারেন। প্রচুর ফল খেতে দিন। এতে শিশুর শরীরের পানির ঘাটতি পূরণ হবে। তবে শিশুকে জোর করে কিছুই খাওয়ানো উচিৎ নয়। বরং সময় নিয়ে ধীরে ধীরে খাওয়ান।

হালকা পোশাক

শিশুকে গরমে কম্ফোর্টেবল রাখতে অবশ্যই হালকা রঙের পোশাক পরান। অনেক অভিভাবক শিশুদের কয়েকটি জামা পরিয়ে রাখেন। শিশুকে অনুষ্ঠানে জাকজমকভাবে প্রকাশের চেয়েও তার আরাম বেশী গুরুত্বপূর্ণ। তাই সেদিকে নজর দিন।

সুস্থ থাকুন আপনি। একই সাথে নিশ্চিত করুন শিশুর সুস্থ থাকা। এই আবহাওয়ায় তাকে দিন বাড়তি যত্ন, দিন বাড়তি মনোযোগ। শিশুরা যেন মানসিক চাপমুক্ত ও সুস্থ জীবন-যাপন করতে পারে। সচেতনতাই আমাদের প্রধান হাতিয়ার।

The post এই সময়ে শিশুর যত্ন নিন appeared first on মিডিয়া খবর.

]]>
https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%8f%e0%a6%87-%e0%a6%b8%e0%a6%ae%e0%a7%9f%e0%a7%87-%e0%a6%b6%e0%a6%bf%e0%a6%b6%e0%a7%81%e0%a6%b0-%e0%a6%af%e0%a6%a4%e0%a7%8d%e0%a6%a8-%e0%a6%a8%e0%a6%bf%e0%a6%a8/feed/ 0
করোনাকালে মানসিক স্বাস্থ্য অটুট রাখবেন যেভাবে https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%95%e0%a6%b0%e0%a7%8b%e0%a6%a8%e0%a6%be%e0%a6%95%e0%a6%be%e0%a6%b2%e0%a7%87-%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%a8%e0%a6%b8%e0%a6%bf%e0%a6%95-%e0%a6%b8%e0%a7%8d%e0%a6%ac%e0%a6%be%e0%a6%b8%e0%a7%8d%e0%a6%a5/ https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%95%e0%a6%b0%e0%a7%8b%e0%a6%a8%e0%a6%be%e0%a6%95%e0%a6%be%e0%a6%b2%e0%a7%87-%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%a8%e0%a6%b8%e0%a6%bf%e0%a6%95-%e0%a6%b8%e0%a7%8d%e0%a6%ac%e0%a6%be%e0%a6%b8%e0%a7%8d%e0%a6%a5/#respond Sat, 18 Apr 2020 21:45:37 +0000 https://www.mediakhabor.com/?p=1574 ইশরাত শাহনাজ বর্তমানে এক ভয়াবহ আতঙ্কের নাম করোনাভাইরাস। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই ভাইরাসটি বিশ্বের সব দেশের মানুষকে আক্রান্ত করে বৈশ্বিক পরিস্থিতি দুর্যোগময় করে তুলেছে। এমনকি প্রতিনিয়ত এই ভাইরাসে আক্রান্ত ও নিহত ব্যক্তির সংখ্যা বেড়ে চলেছে আশঙ্কাজনক হারে। এখন পর্যন্ত এই মহামারির প্রতিষেধক আবিষ্কার করা সম্ভব হয়নি। বিশ্ববাসী কবে এই পরিস্থিতি থেকে পরিত্রান পাবে তারও কোনো …

The post করোনাকালে মানসিক স্বাস্থ্য অটুট রাখবেন যেভাবে appeared first on মিডিয়া খবর.

]]>
ইশরাত শাহনাজ

বর্তমানে এক ভয়াবহ আতঙ্কের নাম করোনাভাইরাস। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই ভাইরাসটি বিশ্বের সব দেশের মানুষকে আক্রান্ত করে বৈশ্বিক পরিস্থিতি দুর্যোগময় করে তুলেছে। এমনকি প্রতিনিয়ত এই ভাইরাসে আক্রান্ত ও নিহত ব্যক্তির সংখ্যা বেড়ে চলেছে আশঙ্কাজনক হারে। এখন পর্যন্ত এই মহামারির প্রতিষেধক আবিষ্কার করা সম্ভব হয়নি। বিশ্ববাসী কবে এই পরিস্থিতি থেকে পরিত্রান পাবে তারও কোনো নিশ্চয়তা আপাতত নেই। এমতাবস্থায় এই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি নিয়ে দুশ্চিন্তা, অস্থিরতা ও ভয় হওয়াটা খুবই স্বাভাবিক। তবে এই দুশ্চিন্তা বা ভয় যেন আমাদের স্বাভাবিক জীবন-যাপনে ব্যাঘাত না ঘটায় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। তাই এগুলোকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে হলে করতে হবে মনের চর্চা।

করোনা পরিস্থিতির কারণে প্রায় সকলেই আমরা গৃহবন্দি। কেঊ বাসা থেকেই অফিস করছি, পড়াশোনা করছি, বা ঘরের কাজ করছি। সব কিছুই করছি মানসিক চাপ নিয়ে। কারো জন্য এই চাপ বেশি মাত্রায় কাজ করছে, কারো জন্য কম মাত্রায় কাজ করছে। এই মানসিক চাপ সীমিত মাত্রায় রেখে আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। কাজে মনোনিবেশ করতে হবে, আর নিতে হবে মনের যত্ন।

এই কঠিন সময়ে মানসিক স্বাস্থ্য অক্ষুন্ন রাখতে যা যা করা যেতে পারে-

১। প্রতিদিনের মৌলিক কাজগুলো যেমন: ঘুম, খাওয়া, বিশ্রামের পাশাপাশি একটি নির্দিষ্ট সময় বের করে করা যেতে পারে ইয়োগা বা যোগাসন। অনেক যোগাসন আছে যা প্রতিদিন চর্চা করলে মন শান্ত করতে, শরীর ফুরফুরে করতে ও মানসিক চাপ কমাতে সাহায্য করে। এছাড়া নিয়মিত শরীরচর্চা আপনার উদ্বেগ কমাতে সাহায্য করবে।

২। যোগাসনের পাশাপাশি মাইন্ডফুলনেস বা মনোযোগিতার চর্চাও করতে পারেন যা আপনাকে বর্তমান সময়ের ব্যাপারে সচেতন ও সজাগ থাকতে সাহায্য করবে। এক্ষেত্রে আপনি যে কাজটিই করবেন তাতে সম্পূর্ণ মনোযোগ দিতে হবে এবং সেই বর্তমান মুহূর্তটিতে যা ঘটছে তা সম্পূর্ণভাবে অনুভব করতে হবে।

৩। নেতিবাচক চিন্তাগুলোকে কমিয়ে বেশি বেশি ইতিবাচক চিন্তা করতে হবে। যেমন এখন আমি কী করবো, আমি তো আর বাঁচবো না বা এই করোনা আমার কিছুই করতে পারবে না- এসব চিন্তা বাদ দিয়ে কীভাবে করোনা প্রতিরোধের পদক্ষেপগুলো ঠিকমত মেনে চলে নিজেকে সুরক্ষিত রাখবো এবং অন্যকে করোনায় আক্রান্ত হওয়ার হাত থেকে রক্ষা করবো চিন্তা করতে হবে।

৪। যদি কখনো উত্তেজনা, উদ্বেগ বা অস্থিরতা অনুভব করেন, তখন গভীরভাবে শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে ও ছাড়তে হবে। পেটের উপর একটি হাত রেখে পেট ফুলিয়ে নাক দিয়ে ধীরে ধীরে শ্বাস নিতে হবে এবং মুখ দিয়ে আস্তে আস্তে শ্বাস ছাড়তে হবে যেন পেট থেকে সব বাতাস বের হয়ে যায়। এভাবে ৩-১০ বার করতে হবে। এটি আপনার মস্তিষ্কে রক্ত ও অক্সিজেন এর সঞ্চালন বৃদ্ধি করবে যা আপনার উত্তেজনা ও অস্থিরতা কমিয়ে দিবে।

৫। স্বাভাবিক কাজ-কর্ম চালিয়ে যেতে হবে। তার সাথে পরিবারের সদস্যদের সাথে বেশি বেশি সময় কাটাতে পারেন। নিজের পছন্দনীয় কাজগুলো যা পড়াশোনা বা অফিসের অতিরিক্ত কাজের চাপে করা হয়ে ওঠে না, সে কাজগুলো করতে পারেন। পেইন্টিংস, গল্পের বই পড়া, মুভি দেখা, সেলাই, সংগীতচর্চা, গাছের পরিচর্যা, খেলাধুলা, রান্না যে যা করতে পছন্দ করেন তাতে মনোনিবেশ করতে পারেন।

৬। সর্বপরি, সারাক্ষণ সোস্যাল মিডিয়ায় বা টেলিভিশনে করোনা সম্পর্কিত সংবাদ দেখা কমাতে হবে। আপনি যদি দিনের বেশিরভাগ সময় এতে ব্যয় করেন তবে আপনি উদ্বেগ কমাতে পারবেন না। তাই এগুলোতে ব্যস্ত না থেকে বা করোনা সম্পর্কিত সংবাদগুলো বেশি মাত্রায় না দেখে উপরে উল্লেখিত কাজগুলো করলে আশা করি আমাদের সকলের মানসিক স্বাস্থ্য অটুট থাকবে এবং এই সংকটময় পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে আমাদেরকে শক্তি যোগাবে।

লেখক: সহকারী অধ্যাপক, মনোবিজ্ঞান বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

Courtesy – rigingbd.com

The post করোনাকালে মানসিক স্বাস্থ্য অটুট রাখবেন যেভাবে appeared first on মিডিয়া খবর.

]]>
https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%95%e0%a6%b0%e0%a7%8b%e0%a6%a8%e0%a6%be%e0%a6%95%e0%a6%be%e0%a6%b2%e0%a7%87-%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%a8%e0%a6%b8%e0%a6%bf%e0%a6%95-%e0%a6%b8%e0%a7%8d%e0%a6%ac%e0%a6%be%e0%a6%b8%e0%a7%8d%e0%a6%a5/feed/ 0
এন ৯৫ মাস্ক ও সার্জিক্যাল মাস্ক https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%8f%e0%a6%a8-%e0%a7%af%e0%a7%ab-%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%b8%e0%a7%8d%e0%a6%95-%e0%a6%93-%e0%a6%b8%e0%a6%be%e0%a6%b0%e0%a7%8d%e0%a6%9c%e0%a6%bf%e0%a6%95%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%be%e0%a6%b2/ https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%8f%e0%a6%a8-%e0%a7%af%e0%a7%ab-%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%b8%e0%a7%8d%e0%a6%95-%e0%a6%93-%e0%a6%b8%e0%a6%be%e0%a6%b0%e0%a7%8d%e0%a6%9c%e0%a6%bf%e0%a6%95%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%be%e0%a6%b2/#respond Fri, 17 Apr 2020 12:35:25 +0000 https://www.mediakhabor.com/?p=1523 কেউ হাঁচি দিলে, কথা বললে, থুথু ফেললে ওই ভাইরাস যেন আপনার শরীরে প্রবেশ করতে না পারে,তার জন্য যেকোনো ধরনের মাস্ক ব্যবহার জরুরি।  সার্জিক্যাল মাস্ক, ঘরে তৈরি মাস্ক নাকি এন-৯৫ মাস্ক করোনাভাইরাস মোকাবেলায় বেশি কার্যকর, তা নিয়ে বিতর্ক রয়েছে। করোনাভাইরাস থেকে নিজেকে রক্ষা করতে আমরা প্রায় সবাই এখন মাস্ক ব্যবহার করছি। কোন মাস্ক আমাদের জন্য সঠিক …

The post এন ৯৫ মাস্ক ও সার্জিক্যাল মাস্ক appeared first on মিডিয়া খবর.

]]>
কেউ হাঁচি দিলে, কথা বললে, থুথু ফেললে ওই ভাইরাস যেন আপনার শরীরে প্রবেশ করতে না পারে,তার জন্য যেকোনো ধরনের মাস্ক ব্যবহার জরুরি। 

সার্জিক্যাল মাস্ক, ঘরে তৈরি মাস্ক নাকি এন-৯৫ মাস্ক করোনাভাইরাস মোকাবেলায় বেশি কার্যকর, তা নিয়ে বিতর্ক রয়েছে। করোনাভাইরাস থেকে নিজেকে রক্ষা করতে আমরা প্রায় সবাই এখন মাস্ক ব্যবহার করছি। কোন মাস্ক আমাদের জন্য সঠিক তা জানাটা জরুরী।

এন-৯৫ মাস্ক হলো মূলত চিকিৎসা কর্মীদের ব্যবহার করার মাস্ক, যা বাতাসের  ৯৫ শতাংশ ক্ষুদ্র কণা আটকে রাখতে সক্ষম। পরিবেশ দূষণ ঠেকাতে বিশেষ যেসব মাস্ক তৈরি হয়, আমেরিকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিটিউট অকুপেশনাল সেফটি অ্যান্ড হেলথ (এনআইওএসএইচ) সেগুলোকে ‘এন’, ‘আর’, ‘পি’- এই তিনটি ভাগে ভাগ করে। ‘এন’ মানে নট অয়েল রেজিস্ট্যান্ট টু অয়েল, ‘আর’ মানে রেজিস্ট্যান্ট টু অয়েল, ‘পি’ মানে অয়েল প্রুফ। সেই হিসেবে এন-৯৫, আর-৯৫ ও পি-৯৫, এন-৯৯, আর-৯৯, পি-৯৯, এন-১০০, আর-১০০ ও পি-১০০ ক্যাটেগরির মাস্ক তৈরি হয়।

যেহেতু এন-৯৫ মাস্ক চিকিৎসা কর্মীদের মাঝে বেশি প্রচলিত, তাই করোনার বিস্তারে সাধারণ মানুষও এই মাস্ক কেনা শুরু করলে আমেরিকায় এই মাস্কের সংকট দেখা দেয়। এ অবস্থায় আমেরিকার সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল প্রতিষ্ঠানটি জোর দিয়ে বলেছে, বাইরে যদি কাজের প্রয়োজনে বের হতেই হয়, তাহলে অবশ্যই কাপড়ের তৈরি মাস্ক পরে বের হলেই ভালো। এন-৯৫ মাস্ক শুধু ডাক্তার ও চিকিৎসা কর্মীদের জন্য, উল্লেখ করে প্রতিষ্ঠানটি।

এন-৯৫ মাস্ক বনাম সার্জিক্যাল মাস্ক: সার্জিক্যাল মাস্কগুলোর সাথে এন-৯৫ মাস্কের একটা পার্থক্য আছে। আর তা হলো এটি যারা মুখে দেন, তাদের মুখের সাথে খুব আঁটসাঁট হয়ে লেগে থাকে, যাতে বাতাসের কোনো ক্ষুদ্র কণা শরীরে প্রবেশ করতে না পারে। এছাড়া আমেরিকার ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন এর তথ্যমতে, এন-৯৫ মাস্কও রোগ জীবাণু পুরোপুরি ঠেকাতে পারে না। আর এই মাস্ক বা অন্য সার্জিক্যাল মাস্ক রিইউজ করা যায় না।

আরেকটি জরুরি বিষয় হলো- যেসব রোগী জটিল শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যা বা হৃদরোগে ভুগছেন, তাদের জন্য এন-৯৫ মাস্ক ব্যবহার করা ঝুঁকিপূর্ণ। কারণ এই মাস্ক ব্যবহার করলে উল্টো ওই রোগীর শ্বাস নিতে আরো জটিলতা দেখা দিতে পারে। এছাড়া এন-৯৫ মাস্ক চিকিৎসা কর্মী আর ইন্ডাস্ট্রিয়াল এলাকা, যেখানে ভবন বা স্থাপনা নির্মাণের কাজ চলছে, সেই এলাকায় কাজ করা লোকদের ব্যবহার করার জন্য তৈরি করা হয়। তাই বাইরে খুব প্রয়োজনে বের হলে সাধারণ মাস্ক পরে বের হওয়াই উচিত। কারণ করোনা ভাইরাস বাতাসে ভেসে বেড়ায় ৩০ মিনিটের মতো। কেউ হাঁচি দিলে, কথা বললে, থুথু ফেললে ওই ভাইরাস যেন আপনার শরীরে প্রবেশ করতে না পারে, সে চেষ্টা করতেই যেকোনো ধরনের মাস্ক ব্যবহার জরুরি। 

The post এন ৯৫ মাস্ক ও সার্জিক্যাল মাস্ক appeared first on মিডিয়া খবর.

]]>
https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%8f%e0%a6%a8-%e0%a7%af%e0%a7%ab-%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%b8%e0%a7%8d%e0%a6%95-%e0%a6%93-%e0%a6%b8%e0%a6%be%e0%a6%b0%e0%a7%8d%e0%a6%9c%e0%a6%bf%e0%a6%95%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%be%e0%a6%b2/feed/ 0
খুনি আবদুল মাজেদ https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%96%e0%a7%81%e0%a6%a8%e0%a6%bf-%e0%a6%86%e0%a6%ac%e0%a6%a6%e0%a7%81%e0%a6%b2-%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%9c%e0%a7%87%e0%a6%a6/ https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%96%e0%a7%81%e0%a6%a8%e0%a6%bf-%e0%a6%86%e0%a6%ac%e0%a6%a6%e0%a7%81%e0%a6%b2-%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%9c%e0%a7%87%e0%a6%a6/#respond Wed, 08 Apr 2020 13:21:48 +0000 https://www.mediakhabor.com/?p=1382 জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মস্বীকৃত ও মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত খুনি আবদুল মাজেদকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ড পাওয়া পলাতক আসামিদের একজন ক্যাপ্টেন (বরখাস্ত) আবদুল মাজেদ। বীরদর্পে ইতিহাসের নির্মম হত্যাকাণ্ডে অংশ নেওয়া মাজেদ গ্রেপ্তার হয়ে এই মুহূর্তে কারাগারের ভেতর। বিভিন্ন অপকর্মের হোতা এই মাজেদ জাতীয় চার নেতাকে জেলে হত্যার …

The post খুনি আবদুল মাজেদ appeared first on মিডিয়া খবর.

]]>
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আত্মস্বীকৃত ও মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত খুনি আবদুল মাজেদকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ড পাওয়া পলাতক আসামিদের একজন ক্যাপ্টেন (বরখাস্ত) আবদুল মাজেদ। বীরদর্পে ইতিহাসের নির্মম হত্যাকাণ্ডে অংশ নেওয়া মাজেদ গ্রেপ্তার হয়ে এই মুহূর্তে কারাগারের ভেতর। বিভিন্ন অপকর্মের হোতা এই মাজেদ জাতীয় চার নেতাকে জেলে হত্যার সঙ্গেও জড়িত ছিলেন।

সোমবার দিবাগত রাতে তাকে রাজধানীর মিরপুর সাড়ে ১১ থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। মঙ্গলবার দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

ডিএমপির কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের উপপরিদর্শক (SI) আদালতে জমা দেওয়া প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন, ‘নিয়মিত টহলদারির দায়িত্বে ছিলেন তিনি। রাত ৩টা ৪৫ মিনিটে গাবতলি বাসস্ট্যান্ডের সামনে দিয়ে সন্দেহজনকভাবে রিকশায় করে যাওয়ার সময় ওই ব্যক্তিকে থামান। জিজ্ঞাসাবাদের সময় তিনি অসংলগ্ন কথা বলতে থাকেন। একপর্যায়ে তিনি নিজের নাম-ঠিকানা প্রকাশ করেন এবং বলেন, তিনি বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলার মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি।

জিজ্ঞাসাবাদে মাজেদ আরও স্বীকার করে, গ্রেপ্তার এড়ানোর জন্য ভারত-সহ বিভিন্ন দেশে আত্মগোপন করে ছিলেন তিনি। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করার পর আরও কয়েকজন খুনির সঙ্গে ব্যাংকক হয়ে লিবিয়া চলে যান মাজেদ। এরপর তৎকালীন সেনাপ্রধান জিয়াউর রহমান তাঁকে সেনেগালের দূতাবাসে বদলি করেন। সেখান থেকে ১৯৮০ সালে দেশে ফিরে আসার পর মাজেদকে বিআইডব্লিউটিসিতে চাকরি দেন জিয়া। সেসময় উপসচিব পদমর্যাদায় তিনি চাকরি করেন। আর সেনাবাহিনী থেকে অবসরে যান। পরে তিনি সচিব পদে পদোন্নতি পান। সেখান থেকে যুব উন্নয়ন মন্ত্রকে পরিচালক পদে যোগদান করেন। ১৯৯৬ সালে আওয়ামি লিগ সরকার ক্ষমতা দখল করে বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচার শুরু করে। পরিস্থিতি খারাপ বুঝে আত্মগোপন করেন মাজেদ। বর্তমানে তাঁর স্ত্রী ক্যান্টনমেন্টের আবাসিক এলাকায় বসবাস করছেন। তাঁর চার কন্যা ও এক ছেলেও রয়েছে।

আবদুল মাজেদ

আবদুল মাজেদের গ্রামের বাড়ি ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলার বাটামারা গ্রামে। তার বাবার নাম আলী মিয়া চৌধুরী, মায়ের নাম মেহেরজান বেগম।

আবদুল মাজেদ চার কন্যা সন্তান ও এক পুত্র সন্তানের জনক। আবদুল মাজেদের পরিবার বর্তমানে ঢাকা সেনানিবাসের ক্যান্টনমেন্ট আবাসিক এলাকায় বসবাস করছেন।

কোথায় ছিলেন মাজেদ

প্রায় ২৫ বছর ভারতের কলকাতায় আত্মগোপনে ছিলেন আবদুল মাজেদ। চলতি বছরের মার্চের মাঝামাঝি সময়ে তিনি দেশে ফেরেন। তবে কীভাবে তিনি দেশে ফিরলেন এবং এরপর গত কয়েকদিন তিনি কোথায় ছিলেন, তা এখনও স্পষ্ট নয়।

১৫ আগস্টে ভূমিকা

১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট ধানমন্ডি ৩২ নম্বর রোডে বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের হত্যাকাণ্ডে সরাসরি অংশ নিয়েছিলেন মাজেদ। তখন তিনি ছিলেন সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তথ্য ও জনসংযোগ কর্মকর্তা শরীফ মাহমুদ অপুর পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানা যায়, বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর মাজেদ কর্নেল (অব.) সুলতান শাহরিয়ার রশীদ খানসহ আরো কয়েকজনের সঙ্গে রেডিও স্টেশন নিয়ন্ত্রণে রাখার দায়িত্বে ছিলেন। অন্য খুনিদের সঙ্গে দেশত্যাগের আগ পর্যন্ত বঙ্গভবনে ‘বিভিন্ন দায়িত্ব’ ছিল তার। পরে হত্যাকাণ্ডে জড়িত অন্য সেনা কর্মকর্তাদের সঙ্গে ব্যাংকক হয়ে লিবিয়ায় চলে যান মাজেদ। তখনকার সেনাপ্রধান জিয়াউর রহমানের নির্দেশেই তারা সে সময় নিরাপদে দেশ ছেড়ে যান বলে উল্লেখ করা হয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে।

আবদুল মাজেদ হলেন বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় পলাতক ছয় খুনির মধ্যে একজন। পলাতক বাকি পাঁচ খুনি হলেন আব্দুর রশিদ, শরিফুল হক ডালিম, এম রাশেদ চৌধুরী, এসএইচএমবি নূর চৌধুরী ও রিসালদার মোসলেম উদ্দিন।

জেলে জাতীয় চারনেতার হত্যাকাণ্ডে অংশ নেন এই ক্যাপ্টেন (বরখাস্ত) আবদুল মাজেদ। জেলহত্যা মামলায় তাকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়। বঙ্গবন্ধু হত্যাকন্ডের পর পুরস্কৃত হয়েছিলেন মাজেদ! বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডে অংশগ্রহণকারী অফিসারদের সঙ্গে তৎকালীন সেনাপ্রধান জিয়াউর রহমানের আদেশে বাংলাদেশ থেকে ব্যাংকক হয়ে লিবিয়ায় যান। সেখানে তিনি ক্যু করা অফিসারদের সঙ্গে প্রায় তিন মাস থাকেন। সে সময়ে তৎকালীন সেনাপ্রধান জিয়াউর রহমান ক্যু করা অফিসারদের হত্যাকাণ্ডের পুরস্কার স্বরূপ বিভিন্ন দেশের দূতাবাসে বৈদেশিক বদলির ব্যবস্থা করেন, তারই অংশ হিসেবে ক্যাপ্টেন মাজেদকে পুরস্কার হিসেবে সেনেগাল দূতাবাসে বদলির আদেশ দেন। পরে ১৯৮০ সালের ২৬ মার্চ জিয়াউর রহমান সরকার ক্যাপ্টেন আবদুল মাজেদকে বিআইডব্লিউটিসিতে চাকরি দেন এবং উপসচিব পদে যোগদানের সুবিধার্থে সেনাবাহিনীর চাকরি থেকে মাজেদ অবসর গ্রহণ করেন। পরে তাকে সচিব পদে পদোন্নতি দেয়া হয়।

এরপর তিনি মিনিস্ট্রি অব ইয়ুথ ডেভেলপমেন্টে ডাইরেক্টর ইয়ুথ ডেভেলপমেন্ট পদের জন্য আবেদন করেন এবং ওই পদে যোগদান করেন। সেখান থেকে তিনি ডাইরেক্টর অব হেড অব ন্যাশনাল সেভিংস ডিপার্টমেন্টে বদলি হন।

বিচার শুরু

সামরিক শাসক জিয়াউর রহমানের আমলে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের বিচারের পথ রুদ্ধ করে দেওয়া হয়েছিল দায়মুক্তির অধ্যাদেশের মাধ্যমে। ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় ফেরার পর বিচারের পথ খোলে। মামলার পর বিচারও শুরু হয়। সে সময় আটক হওয়ার ভয়ে আত্মগোপনে যান আবদুল মাজেদ।

এরপর ২০০১ সালে বিএনপি-জামায়াত জোট ক্ষমতায় গেলে ফের বন্ধ হয়ে যায় বিচার প্রক্রিয়া। আওয়ামী লীগ ২০০৯ সালে পুনরায় ক্ষমতায় ফিরলে মামলার চূড়ান্ত নিষ্পত্তি হয়।

রায় কার্যকর কীভাবে

মঙ্গলবার মাজেদকে গ্রেপ্তার করার পর সন্ধ্যায় আইনমন্ত্রী আনিসুল হক এক ভিডিও বার্তায় বলেন, ‘এখন ক্যাপ্টেন আবদুল মাজেদের বিরুদ্ধে রায় কার্যকর করার জন্য আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়ে গেছে এবং আনুষ্ঠানিকতা শেষ হলেই রায় কার্যকর করা হবে।’

আইনজীবীরা বলছেন, আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করার সময় বহু বছর আগেই পেরিয়ে যাওয়ায় সেই সুযোগ আর মাজেদ পাবেন না। তবে সংবিধান অনুসারে রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষা চাওয়ার সুযোগ তার থাকবে। সেই আবেদন তিনি না করলে বা আবেদন প্রত্যাখ্যাত হলে সরকার এই আসামির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করতে পারবে।

অন্য আসামিরা সর্বোচ্চ সাজার আদেশ পাওয়া আসামিদের মধ্যে সৈয়দ ফারুক রহমান, সুলতান শাহরিয়ার রশীদ খান, মহিউদ্দিন আহমদ (ল্যান্সার), এ কে বজলুল হুদা ও এ কে এম মহিউদ্দিনের (আর্টিলারি) ফাঁসি কার্যকর করা হয় ২০১০ সালের ২৮ জানুয়ারি।

খন্দকার আবদুর রশিদ, এ এম রাশেদ চৌধুরী, শরিফুল হক ডালিম, এসএইচএমবি নূর চৌধুরী ও রিসালদার মোসলেম উদ্দিন খান এখনও পলাতক।

courtesy – https://www.risingbd.com/

The post খুনি আবদুল মাজেদ appeared first on মিডিয়া খবর.

]]>
https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%96%e0%a7%81%e0%a6%a8%e0%a6%bf-%e0%a6%86%e0%a6%ac%e0%a6%a6%e0%a7%81%e0%a6%b2-%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%9c%e0%a7%87%e0%a6%a6/feed/ 0
দেশের জলসীমায় ডলফিন https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%a6%e0%a7%87%e0%a6%b6%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%9c%e0%a6%b2%e0%a6%b8%e0%a7%80%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a7%9f-%e0%a6%a1%e0%a6%b2%e0%a6%ab%e0%a6%bf%e0%a6%a8/ https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%a6%e0%a7%87%e0%a6%b6%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%9c%e0%a6%b2%e0%a6%b8%e0%a7%80%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a7%9f-%e0%a6%a1%e0%a6%b2%e0%a6%ab%e0%a6%bf%e0%a6%a8/#respond Sun, 05 Apr 2020 19:37:01 +0000 https://www.mediakhabor.com/?p=1318 সোয়াচ অব নো গ্রাউন্ড বঙ্গোপসাগরে বাংলাদেশের জলসীমায় সংরক্ষিত এলাকা। সমুদ্রবিজ্ঞানীদের মতে এই সোয়াচ অব নো গ্রাউন্ড একটি সামুদ্রিক অভয়ারণ্য। গবেষকদের মতে পৃথিবীর অন্যতম গভীরতম মেরিন ভ্যালি এখানে। মৎস ও অন্যান্য সামদ্রিক সম্পদে ভরপুর এই নীল জলরাশি বাংলাদেশের একমাত্র জায়গা যেখানে হরহামেশাই তিমির দেখা মেলে। সোয়াচ অব নো গ্রাউন্ডে দেখা যায় ৭ প্রজাতির তিমি, ১১ প্রজাতির …

The post দেশের জলসীমায় ডলফিন appeared first on মিডিয়া খবর.

]]>
সোয়াচ অব নো গ্রাউন্ড বঙ্গোপসাগরে বাংলাদেশের জলসীমায় সংরক্ষিত এলাকা। সমুদ্রবিজ্ঞানীদের মতে এই সোয়াচ অব নো গ্রাউন্ড একটি সামুদ্রিক অভয়ারণ্য। গবেষকদের মতে পৃথিবীর অন্যতম গভীরতম মেরিন ভ্যালি এখানে। মৎস ও অন্যান্য সামদ্রিক সম্পদে ভরপুর এই নীল জলরাশি বাংলাদেশের একমাত্র জায়গা যেখানে হরহামেশাই তিমির দেখা মেলে। সোয়াচ অব নো গ্রাউন্ডে দেখা যায় ৭ প্রজাতির তিমি, ১১ প্রজাতির হাঙ্গর, ৬ প্রজাতির ডলফিন । সোয়াচ অব নো গ্রাউন্ডের কিছু ছবি আপনাদের জন্য আপলোড করা হল। ছবি গুলো বিভিন্ন সময়ে গবেষকগণ তুলেছেন । আরো তথ্য ছবির ক্যাপশনে।

বিশ্বের সর্বচ্চো সংখ্যক ইরাবতি ডলফিন রয়েছে সুন্দরবনসহ বঙ্গোপসাগর উপকুলে।

সাড়ে ৩ বছর আগে ডলফিন ইরাবতি ছিল বিশ্বের বিলুপ্ত প্রজাতির তালিকায়। এখন বাংলাদেশের জল সীমায় সন্ধান মিলেছে ডলফিন ইরাবতির এক নতুন চারণ ক্ষেত্রের। বিশ্বের সর্বচ্চো সংখ্যক ইরাবতি ডলফিন রয়েছে সুন্দরবনসহ বঙ্গোপসাগর উপকুলে। বিশ্বখ্যাত ম্যানগ্রোভ ফরেষ্ট সুন্দরবনের নদ-নদী, সুন্দরবন উপকূল ও বঙ্গোপসাগরের সোয়াস অব নো গ্রাউন্ডসহ ১২০ কি. মি. পর্যন্ত গভীর সমূদ্রে রয়েছে ৫ হাজার ৪শ’ ইরাবতি ডলফিন।
শুধু ইরাবতি ডলফিনই নয়, এখানে আরো কয়েক প্রজাতির ডলফিন রয়েছে। গত ৩ বছর আগে এই ডলফিন রক্ষায় সুন্দরবনের ৩ টি এলাকার ৩১ দশমিক ৪ কিলোমিটার নদী ও খালকে ডলফিনের জন্য অভয়াশ্রয় ঘোষণা করে বন ও পরিবেশ মন্ত্রণালয়। ডলফিন রক্ষার এই ঘোষণা কয়েক বছর ধরে রয়েছে কাগজে-কলমে। এখনো এই অভয়াশ্রয়ে অবাধে চলছে বিভিন্ন প্রকার জাল দিয়ে মাছ শিকার। মরার উপর খাড়ার ঘা হিসেবে দেখা দিয়েছে বন মন্ত্রণালয়ের অনুমতি ছাড়া এই অভয়াশ্রয়ের বুক চিরে চালু হওয়া অভ্যন্তরীন ও আন্তর্জাতিক নৌ-রুট। এ নতুন নৌ-রুট চালুর ফলে হুমকির মুখে পড়েছে ডলফিনের অস্তিত্ব।

Image may contain: ocean, outdoor and water
ডলফিন


পূর্ব সুন্দরবন বিভাগ সূত্রে জানা যায়, সাড়ে ৩ বছর আগে ওয়ার্ল্ড লাইফ কনজারভেশন সোসাইটি, এনওয়াই ও বাংলাদেশ সিটাসিন ডাইভারসিটি প্রজেক্টের দেশী-বিদেশী প্রাণী বিশেষজ্ঞরা যৌথভাবে সুন্দরবনসহ বঙ্গোপসাগরে ব্যাপক অনুসন্ধান চালিয়ে বিলুপ্ত ইরাবতিসহ ৬ প্রজাতির ডলফিন ও ১ প্রজাতির তিমির সন্ধান পায়। প্রাণী বিশেষজ্ঞদের যৌথ অনুসন্ধান জরিপ রিপোর্ট থেকে জানাগেছে, এই ডলফিন চারণক্ষেত সুন্দরবনের বাংলাদেশ অংশের নদ-নদীসহ বঙ্গোপসাগরের সোয়াস অব নো গ্রাউন্ডে বিশ্বের সর্বোচ্চ সংখ্যক বিলুপ্ত প্রজাতি ইরাবতি ডলফিন রয়েছে ৫ হাজার ৪শ। এছাড়াও এই জল সীমার ১৩ টি স্পটে ৪০টি ইন্দো-প্যাসিফিক হাম্প ব্যাক্ট ডলফিনের দেখা পাওয়া গেছে, উপকূল থেকে ১১ মাইল সুন্দরবনের মধ্যে ১ হাজার ৩৮২ টি ফিনলেস ডলফিন, ১ হাজার ইন্দো-প্যাসিফিক বটল নোস ডলফিন, সুন্দরবন উপকূলের ১৪ টি স্পটে সন্ধান মিলেছে ষ্পিনার ডলফিনের।
তবে ষ্পিনার ডলফিনের সংখ্যা জরিপ রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়নি। সুন্দরবন উপকূলের ৮ টি স্পটে সন্ধান মিলেছে ৮শ ষ্পটেড ডলফিনের ও সুন্দরবনসহ উপকূলের ১৩ টি স্পটে ২২৫ টি গংগেজ রিভার ডলফিন দেখতে পাওয়া গেছে।
এছাড়া ব্রাইডস হোয়েলস প্রজাতির ৫০ টি তিমির দেখা মিলেছে। প্রাণী বিশেষজ্ঞদের নতুন এই তিমি চারণক্ষেত্রের সন্ধান লাভের খবর ২০০৯ সালের জুন মাসে ইন্টারনেটে দেয়া হলে গোটা বিশ্বের মিডিয়া গুরুত্ব সহকারে প্রচার করে। তবে এখনো দেশী মিডিয়ায় এই বিষয়টি নিয়ে তেমন প্রচার-প্রচারণা নেই।
প্যানসিডি প্রকল্পে বলা হয়েছে, বঙ্গোপসাগরসহ সুন্দরবনের নদ-নদীর পানি, পানির উষ্ণতা ইরাবতি ডলফিনের বংশ বৃদ্ধির জন্য খুবই সহায়ক। তবে ফারাক্কা বাঁধের কারণে গঙ্গার পানি প্রবাহ এখন সুন্দরবনে কম আসা ও সমূদ্রের পানির উচ্চতা বেড়ে যাওয়ার পাশাপাশি এই এলাকায় চিংড়ির রেনু পোনা আহরণে কারেন্ট জালের অবাধ ব্যবহারের ফলে ইরাবতি ডলফিনের বংশ বৃদ্ধি এখন চরম হুমকির মুখে পড়েছে।

Image may contain: water
An adult humpback dolphin displays its characteristic pink coloration. Credit: Rubaiyat Mowgli Mansur/WCS-Bangladesh.

Image may contain: water and outdoor
ndo-Pacific bottlenose dolphin calf surfacing next to its mother in the Bay of Bengal. Credit: Rubaiyat Mowgli Mansur.

Image may contain: outdoor and water
A group of Dolphin at the Swatch of No-Ground in March. Photo: Isabela Foundation.

Carcass with Gillnet
These boats made 37 trips lasting 8-12 days each over a five month period during which the fishermen recorded four fatal entanglements in gillnets: two Irrawaddy dolphins and two bottlenose dolphins. They also recorded basic information from the dolphin carcasses (e.g., measurements and sex), took photographs, and collected biological samples
Bangladesh fishermen training
the fishermen recorded the geographical locations of 125 dolphin groups. These included five Ganges River dolphin (Platanista gangetica) groups in the Barisal River on the way to the Bay of Bengal, and 71 Irrawaddy (Orcaella brevirostris), 28 Indo-Pacific humpback (Sousa chinensis), 20 Indo-Pacific bottlenose (Tursiops aduncus), and one pantropical spotted dolphin (Stenella attenuata) groups in marine waters. These are the first ever records of cetaceans in these waters during the monsoon season.
বেতনা নদীর চরে আটকা পড়া বিরল প্রজাতির ইরাবতি ডলফিন

Courtesy – Rubaiyat Mansur, defence research forum- defres and https://www.iucn.org/

The post দেশের জলসীমায় ডলফিন appeared first on মিডিয়া খবর.

]]>
https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%a6%e0%a7%87%e0%a6%b6%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%9c%e0%a6%b2%e0%a6%b8%e0%a7%80%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a7%9f-%e0%a6%a1%e0%a6%b2%e0%a6%ab%e0%a6%bf%e0%a6%a8/feed/ 0
গবেষণাগার নাট্যরীতি এবং স্বপ্নদলের নাট্যসৃজন https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%97%e0%a6%ac%e0%a7%87%e0%a6%b7%e0%a6%a3%e0%a6%be%e0%a6%97%e0%a6%be%e0%a6%b0-%e0%a6%a8%e0%a6%be%e0%a6%9f%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%b0%e0%a7%80%e0%a6%a4%e0%a6%bf-%e0%a6%8f%e0%a6%ac%e0%a6%82/ https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%97%e0%a6%ac%e0%a7%87%e0%a6%b7%e0%a6%a3%e0%a6%be%e0%a6%97%e0%a6%be%e0%a6%b0-%e0%a6%a8%e0%a6%be%e0%a6%9f%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%b0%e0%a7%80%e0%a6%a4%e0%a6%bf-%e0%a6%8f%e0%a6%ac%e0%a6%82/#respond Tue, 31 Mar 2020 00:22:25 +0000 https://www.mediakhabor.com/?p=1060 বিশ্বনাট্যধারায় সুপরিচিত শব্দ ‘ল্যাবেরেটরি থিয়েটার’-এর প্রতিশব্দ হিসেবে ‘গবেষণাগার নাট্য’ অভিধাটি বাংলা ভাষায় প্রথম ব্যবহার করেন নাট্যাচার্য সেলিম আল দীন, তার গবেষণাগ্রন্থ ‘গবেষণাগার নাট্য : একটি মারমা রূপকথা’-য়। তবে ‘গবেষণাগার নাট্য’ (ল্যাবরেটরি থিয়েটার) এবং প্রচলিত ধারণার ‘গবেষণা নাট্য’ (রিসার্চ থিয়েটার) বা ‘নাট্য গবেষণা’ (থিয়েটার রিসার্চ) প্রভৃতির মধ্যে রয়েছে দার্শনিক, উপাদানগত, মাত্রাগত ও নৈয়ায়িক গুরুত্বপূর্ণ পার্থক্য। গবেষণাগার নাট্যের …

The post গবেষণাগার নাট্যরীতি এবং স্বপ্নদলের নাট্যসৃজন appeared first on মিডিয়া খবর.

]]>
বিশ্বনাট্যধারায় সুপরিচিত শব্দ ‘ল্যাবেরেটরি থিয়েটার’-এর প্রতিশব্দ হিসেবে ‘গবেষণাগার নাট্য’ অভিধাটি বাংলা ভাষায় প্রথম ব্যবহার করেন নাট্যাচার্য সেলিম আল দীন, তার গবেষণাগ্রন্থ ‘গবেষণাগার নাট্য : একটি মারমা রূপকথা’-য়। তবে ‘গবেষণাগার নাট্য’ (ল্যাবরেটরি থিয়েটার) এবং প্রচলিত ধারণার ‘গবেষণা নাট্য’ (রিসার্চ থিয়েটার) বা ‘নাট্য গবেষণা’ (থিয়েটার রিসার্চ) প্রভৃতির মধ্যে রয়েছে দার্শনিক, উপাদানগত, মাত্রাগত ও নৈয়ায়িক গুরুত্বপূর্ণ পার্থক্য।

গবেষণাগার নাট্যের আবশ্যকীয় অনুষঙ্গ নবতর তত্ত্ব ও প্রয়োগরীতির ভাবনা এবং বিশেষ ঐ শিল্পাদর্শের ভিত্তিতে মঞ্চকেন্দ্রিক নাট্যগবেষণা। অর্থাৎ গবেষণাগার নাট্যের বাধ্যতামূলক স্তর হচ্ছে ল্যাবরেটরি বা ব্যবহারিক পরীক্ষার-নিরীক্ষার পর্যায় এবং এ ধারাবাহিকতায় বর্জন-বিশ্লেষণ-গ্রহণের অধ্যায় পেরিয়ে গবেষণালব্ধ ও চূড়ান্তভাবে বাছাইকৃত সিদ্ধান্তসমূহের মঞ্চে ব্যবহারিকভাবে প্রয়োগ। অন্যদিকে, ‘গবেষণা নাট্য’-র জন্য নবতর তত্ত্ব ও প্রয়োগরীতির ভাবনা সর্বোপরি ল্যাবরেটরি ধাপ জরুরি নয় বরং এর বিস্তৃতি সাধারণত পাণ্ডুলিপি কিংবা প্রচলিত প্রয়োগচিন্তার মধ্যেই থাকে সীমাবদ্ধ।

জ্ঞাত ইতিহাসের প্রামাণ্যসহ প্রথম নাট্যনির্দেশক মিশরীয় ‘এবিডস বা ওসেরিস প্যাশানে প্লে’-র অন্যতম নির্মাতা আই-খার-নেফার্ত (রাজা তৃতীয় উজাটসসেন সম্ভাব্য ১৮৮৭ থেকে ১৮৪৯ খ্রিস্টপূর্বাব্দের মধ্যে ওসিরিসের মন্দির স্থাপন ও প্যাশান প্লে মঞ্চায়নের জন্যে যাকে এবিডসে প্রেরণ করেছিলেন) থেকে শুরু করে প্রথম-আধুনিক নাট্যনির্দেশক বলে স্বীকৃত জার্মানির ২য় জর্জ, ডিউক অব সাক্সেমাইনিনেজেন (১৮২৬-১৯১৪) কিংবা তৎপরবর্তীকালের সচেতন নির্দেশকদের সৃজনের অভ্যন্তরে গবেষণার কিছু উপাদান লক্ষিত হলেও নির্দেশক-নির্বিশেষের কর্মপ্রয়াসকেই ‘গবেষণাগার নাট্য’ হিসেবে সম্মানপ্রদান করা যায় না।

তথাপি ‘ল্যাবরেটরি থিয়েটার’ বা ‘গবেষণাগার নাট্য’-র রয়েছে রয়েছে দীর্ঘদিবসের ঐতিহাসিক ধারাবাহিকতা। ১৮৯৮-এ পদ্ধতিগত নাট্যগবেষণার উদ্দেশ্যে সৃষ্ট মস্কো আর্ট থিয়েটারে ‘সাইকোটেকনিক’ বা ‘মেথড’ অভিনয়ের প্রবক্তা কনস্তান্তিন সার্গেইভিচ স্তানিস্লাভস্কি (১৮৬৩-১৯৩৮) ও ভ্লাদিমির নেমিরোভিচ-দেনচেঙ্কো (১৮৫৮-১৯৪৩) আধুনিককালে প্রথম বিশেষ শিল্পাদর্শের ভিত্তিতে মঞ্চকেন্দ্রিক নাট্যগবেষণার সূত্রপাত করেন। স্তানিস্লাভস্কির আত্মজৈবনিক নানাগ্রন্থের মাধ্যমে এ গবেষণাগারে পরীক্ষা-নিরীক্ষার বিস্তৃত বিবরণ প্রামাণ্যরূপে আমাদের সম্মুখে হাজির হয়েছে। অভিনেতার শারীরিক-আত্মিক নির্মাণ, নির্দেশকের নিয়ন্ত্রণ, শিল্পাদর্শ, চরিত্রের অন্তরঙ্গ ব্যাখা ও বহিরঙ্গ ব্যবহারের অনুধাবন, নাট্য নির্বাচন, পাঠের বাহিরঙ্গ নির্মাণ ও উপপাঠ বিশ্লেষণ প্রভৃতি সর্বক্ষেত্রে পরীক্ষা-নিরীক্ষা বা ব্যবহারিক মঞ্চকেন্দ্রিক নাট্যগবেষণায় ব্যাপৃত ছিলো এ গবেষণাগার।

ব্রিটিশ অভিনেতা-নির্দেশক-মঞ্চ পরিকল্পক গর্ডন ক্রেইগ-ও (১৮৭২-১৯৬৬) সে সময়ে নিজস্ব উদ্যোগে লন্ডনে নাট্যগবেষণায় ব্রতী হন। তার শিল্পাদর্শ ছিলো প্রাচ্য ও পাশ্চাত্যের নানা বিশিষ্টতার সমন্বয়ে নব্যকালের নাট্যাবয়ব তথা আন্তর্জাতিক থিয়েটারের ভাষা নির্মাণ।

১৯০৫-এ পুনরায় স্তানিস্লাভস্কি ও ভসেভোল্ড মেয়ারহোল্ড (১৮৭৪-১৯৪০) আরেক নাট্যগবেষণাগার ‘থিয়েটার স্টুডিও’ গড়ে তোলেন। এখানেই স্বভাববাদী-প্রকৃতিবাদী বাস্তবতার বিপরীতে মেয়ারহোল্ডের নব্য-শিল্পাদর্শ অর্থাৎ শরীরনির্ভর অভিনয়রীতি ‘বায়োমেকানিকস’ এবং প্রযোজনারীতি ‘কনস্ট্রাকটিভিজম’-এর উদ্ভব ঘটে।

১৯১৩-এ পরীক্ষা-নিরীক্ষার ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখার অভিপ্রায়ে মেয়ারহোল্ড নিজেই একটি স্থায়ী স্টুডিও গড়ে তোলেন।

Image may contain: 2 people, including Zahid Repon, shoes

‘পুওর থিয়েটার’ বা ‘নিরাভরণ নাট্য’-র প্রবক্তা পোলিশ নাট্যনির্দেশক জার্জি গ্রোটওস্কি (১৯৩৩-১৯৯৯) তার থিয়েটার কোম্পানি ‘থিয়েটার অব থার্টিন রোজ’-এ প্রথম প্রযোজনা (কোর্ডিয়ান) নির্মাণের অব্যবহিত পরেই এতে ‘অভিনয়ের পদ্ধতিগত গবেষণা’-র সূচনা করেন এবং দলের সঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে ‘ল্যাবরেটরি থিয়েটার’ শব্দবন্ধটি যুক্ত করেন। পরবর্তীতে গ্রোটওস্কি বারবার তার প্রয়াসকে ‘ল্যাবরেটরি থিয়েটার’ (গবেষণাগার নাট্য) হিসেবে বর্ণনা করেছেন।

স্বনামখ্যাত নাট্যনির্দেশক পিটার ব্র্রুক (১৯২৫- )-এর সুবিখ্যাত গ্রন্থ ‘দ্য এম্পটি স্পেস’-এর চারটি অধ্যায়েই (দ্য ডেডলি থিয়েটার, দ্য হলি থিয়েটার, দ্য রাফ থিয়েটার, দ্য ইমিডিয়েট থিয়েটার) তার নাট্যবিষয়ক নন্দনতাত্ত্বিক ভাবনার সমান্তরালে ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা ও পরীক্ষা-নিরীক্ষার বিস্তৃত বিবরণ বর্ণিত হয়েছে। অতএব প্রমাণিত হয় যে, পিটার ব্র্রুকও তার নাট্যনির্মাণ করেছেন গবেষণাগারের আশ্রয়ে বা গবেষণাগার নাট্যরীতিতে।

মার্কস প্রভাবিত জার্মান নাট্যকার ব্রেটোল্ড ব্রেশট (১৮৯৮-১৯৫৬) কর্তৃক দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ পরবর্তীকালে দীর্ঘসংগ্রামের সহযোগী ও অর্ধাঙ্গিণী হেলেনা ভাইগেলের সঙ্গে স্থাপিত নাট্যসংগঠন ‘বার্লিনার আনসম্বল’-এ গবেষণাগার পদ্ধতিতে দ্বান্দ্বিক বিশ্লেষণ ও অনুসন্ধানের মাধ্যমেই নির্মাণ করেছিলেন ব্যাপক আলোচিত নাট্যাঙ্গিক ‘এপিক থিয়েটার’। যেখানে প্রাচ্যরীতির ‘বিযুক্তিকরণ’ বা ‘এলিয়েনেশন’ তত্ত্বের বৈজ্ঞানিক ব্যবহার প্রভৃতি মঞ্চকেন্দ্রিক গবেষণার মাধ্যমে নবতর ও কার্যকর এ দ্বান্দ্বিক থিয়েটার অবয়ব বিকশিত হয়।

বাংলায় রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের (১৮৬১-১৯৪১) নাট্যপ্রযোজনা বা নাট্যনির্দেশনাকে যদিও প্রচলিত অর্থে গবেষণাগারসম্ভূত বলা কঠিন, কিন্তু এ আধুনিক ও আপাদমস্তক নাট্যমহাজনের প্রশিক্ষণপ্রদান, মহড়াপদ্ধতি, নাট্যভাবনা এবং সে ভাবনার সমান্তরালে নাট্যের আঙ্গিকসৃজন প্রভৃতি বিচারপূর্বক সেলিম আল দীন প্রমুখ বিশেষজ্ঞরা রবীন্দ্রনাথের নাট্যপ্রয়াসকে ‘শিথিল অর্থে’ গবেষণাগার থিয়েটার বলে অভিধান্বিত করার পক্ষপাতী। বিশেষত, রবীন্দ্রনাথের প্রাথমিক জোড়াসাঁকো পর্বের পরবর্তী প্রয়াস অর্থাৎ তার ‘শান্তিনিকেতন পর্ব’-র নাট্যভাবনা ও প্রয়োগ নিশ্চিতই গবেষণাগার থিয়েটার নামে চিহ্নিত হওয়ার যোগ্য।

নাট্যাচার্য সেলিম আল দীন ‘ল্যাবরেটরি থিয়েটার’-এর বাংলা পরিভাষা হিসেবে ‘গবেষণাগার নাট্য’ অভিধাটি প্রথম ব্যবহার করেন, একথা পূর্বেই উক্ত হয়েছে। নাট্যাচার্যের সঙ্গে ব্যক্তিগত আলাপচারিতা থেকে জ্ঞাত যে, সেলিম আল দীন নাট্যনির্মাণকে বিজ্ঞানের সমতুল্য বলেই জ্ঞান করতেন। বিজ্ঞান সম্পর্কিত গবেষণার ক্ষেত্রে যেমন ল্যাবরেটরিতে ‘পরীক্ষা-পর্যক্ষেক্ষণ’ ধাপের মধ্য দিয়ে একটি ‘সিদ্ধান্ত’ পর্যায়ে উপনীত হওয়া যৌক্তিক, তেমনি নাট্যগবেষণাগারে গবেষণাগার পদ্ধতিতে ব্যবহারিক পরীক্ষা-নিরীক্ষার মধ্যদিয়ে ‘চূড়ান্ত ফলাফল’ অর্জন এবং পরবর্তীতে তা মঞ্চে বাস্তব-প্রয়োগের মধ্য দিয়ে গবেষণাগার নাট্যরীতির সমগ্রবৃত্তটি পরিভ্রমণ করাও সম্ভব। এভাবেই সেলিম আল দীন লঘু-নৃগোষ্ঠী মারমাদের উপকথাভিত্তিক প্রযোজনা এথনিক থিয়েটার (জাতিগত থিয়েটার) ‘মনরিমাংৎসুমুই’ সহযোগে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের নাট্যগবেষণাগারে গবেষণাগার পদ্ধতিতে নব্যসৃজন করেছিলেন নিও-এথনিক থিয়েটার (নব্য-জাতিগত নাট্য) ‘একটি মারমা রূপকথা’। আর এক্ষেত্রে তার শিল্পদর্শন, গবেষণাপদ্ধতি এবং গবেষণার মাধ্যমে প্রাপ্ত উপাত্ত ও সিদ্ধান্তসমূহের বাস্তবপ্রয়োগপ্রক্রিয়া প্রভৃতির বিস্তৃত বিবরণের প্রামাণ্য হয়ে রয়েছে বাংলা একাডেমি প্রকাশিত সেলিম আল দীন কৃত অসামান্য গ্রন্থ ‘গবেষণাগার নাট্য : একটি মারমা রূপকথা’।

Image may contain: 2 people, people on stage

পূর্বেই বলা হয়েছে যে, গবেষণাগার নাট্যরীতির উদ্ভব ঘটে প্রচলিত ধারার সাপেক্ষে ভিন্নতর তত্ত্ব ও প্রয়োগরীতির ভাবনা থেকে। সুতরাং গবেষণাগার থিয়েটারের আবশ্যকীয় বৈশিষ্ট্য হচ্ছে- নবতর শিল্পাদর্শ ও প্রয়োগরীতি এবং এ লক্ষ্যে তাত্ত্বিক-ব্যবহারিক মঞ্চকেন্দ্রিক গবেষণার মাধ্যমে প্রাপ্ত উপাত্তসমূহ বিশ্লেষণ, বর্জন-গ্রহণ ও সর্বশেষ মঞ্চে উপস্থাপিত হওয়ার মধ্যেই গবেষণাগার থিয়েটারের সার্থকতা। নাট্যাচার্য সেলিম আল দীন গবেষণাগার থিয়েটার পদ্ধতিতে নাট্যসৃজন কার্যক্রমকে ‘গবেষণাগার নাট্য : একটি মারমা রূপকথা’ গ্রন্থে চারটি স্তরে বিন্যস্ত করেছেন-
ক. নির্দেশকের শিল্পতত্ত্বের উদ্দেশ্য ও লক্ষ্য কী তা বিচার করা।
খ. উল্লিখিত শিল্পতত্ত্বের ক্রমান্বয়সমূহের প্রয়োগগত চর্যা।
গ. নিরীক্ষাসমূহের পৌনঃপুনিক বর্জন, নির্বাচনের ফলাফল বিচার ও সংকলন।
ঘ. ফলাফলসমূহের বাস্তব প্রয়োগ।

প্রসঙ্গত বলা প্রয়োজন, বাংলা একাডেমির তরুণ লেখক প্রকল্পের অংশ হিসেবে এবং নাট্যাচার্যের কর্মপ্রয়াসে উদ্বুদ্ধ হয়ে ও তার প্রেরণায় গবেষণাগার নাট্যপদ্ধতিতে নাট্যসংগঠন ফরিদপুর থিয়েটারের সঙ্গে আমি নির্মাণ করেছিলাম মৈমনসিংহ-গীতিকার পালা অবলম্বনে গবেষণাগার নাট্য কাজলরেখা। এখানে নির্দেশক হিসেবে আমার শিল্পাদর্শ ছিলো- উপনিবেশ উত্তরকালে ঐতিহ্যের ধারায় একটি আধুনিক নাট্যপ্রযোজনা নির্মাণ, যা একই সঙ্গে ঐতিহ্যের বিশিষ্টতাকে ধারণ করবে এবং পাশাপাশি হয়ে উঠবে আধুনিক দর্শকের রুচির সমান্তরাল। অর্থাৎ উপনিবেশ-উত্তর ও পাশ্চাত্য নাট্যরীতি প্রভাবিত এ সমকালে একটি প্রাচীন গীতিকা বা পালা কিংবা ঐতিহ্যবাহী নাট্য কীভাবে স্বীয় বৈশিষ্ট্যসমূহ অক্ষুন্ন রেখেই আধুনিক দর্শক-শ্রোতাদের রুচির উপযোগী হয়ে উঠতে পারে গবেষণাগার পদ্ধতিতে তার ব্যবহারিক সূত্রসমূহ চিহ্নিতকরণের মধ্য দিয়ে ঐতিহ্যের ধারায় বাঙালির নিজস্ব আধুনিক নাট্যরীতি বাঙলা নাট্যরীতির সাধারণ সূত্রসমূহ উদ্ভাবনই ছিলো আমার অভীষ্ট। পরবর্তীতে গবেষণাগার নাট্যরীতিতে ‘কাজলরেখা’ প্রযোজনা নির্মাণ, দর্শকের সম্মুখে প্রদর্শনীর মাধ্যমে সিদ্ধান্তসমূহের উপযোগিতা যাচাই এবং গবেষণাগার হতে প্রাপ্ত উপাত্তসমূহ তথা গবেষণার বিস্তৃত বিবরণ প্রভৃতি আমার রচনায় গ্রন্থাকারে ‘‘লোকনাট্যের আধুনিক উপস্থাপনরীতি : ‘মৈমনসিংহ-গীতিকার ‘কাজলরেখা’’ নামে ১৯৯৭-এ বাংলা একাডেমি থেকে প্রকাশিত হয়েছে। বলাবাহুল্য, পূর্বোল্লিখিত বিজ্ঞান-গবেষণার অনুরূপ বাঙলা নাট্যরীতির ‘পরীক্ষা-পর্যবেক্ষণ-সিদ্ধান্ত’ পদ্ধতির স্মারক নাট্যচার্য সেলিম আল দীনের গ্রন্থটির পরে এটিই ছিলো বাংলা ভাষায় এতদধারার দ্বিতীয় গ্রন্থ। উৎসাহীজন গবেষণাগার নাট্যরীতি সম্পর্কে অধিকতর ধারণা অর্জনের জন্য নাট্যাচার্য সেলিম আল দীন প্রণীত ‘গবেষণাগার নাট্য : একটি মারমা রূপকথা’ এবং আমার ‘‘লোকনাট্যের আধুনিক উপস্থাপনরীতি : ‘মৈমনসিংহ-গীতিকার ‘কাজলরেখা’’ গ্রন্থদ্বয় পাঠ করতে পারেন। পাশাপাশি পঠন আবশ্যক ইছামতি প্রকাশন থেকে প্রকাশিত এবং অধ্যাপক রশীদ হারুন প্রণীত ‘সেলিম আল দীনের নাট্যনির্দেশনা : নন্দনভাষ্য ও শিল্পরীতি’ গ্রন্থটি।

Image may contain: 1 person, text

এ পর্যায়ে নাট্যসংগঠন স্বপ্নদলের প্রযোজনাসমূহকে কীভাবে গবেষণাগার নাট্যরীতিপ্রসূত বলে বিবেচনা করা সম্ভব তা বিশ্লেষণের প্রয়াস পাওয়া যেতে পারে। ২০০১-এর ১০ই আগস্ট প্রতিষ্ঠিত স্বপ্নদলের স্লোগান ‘ঐতিহ্য অন্বেষণে শৈল্পিক শুদ্ধতা’। অর্থাৎ স্বপ্নদল বিশ্বাস করে যে, উপনিবেশ-উত্তর এ শিল্পবিভ্রান্তির কালে বাঙালির দীর্ঘ ঐতিহ্য অন্বেষণের প্রক্রিয়ায়ই প্রকৃতপক্ষে বাঙালির নিজস্ব শুদ্ধশিল্পের সন্ধানলাভ সম্ভব। বর্ণিত বিশ্বাসের অনুকূলে নাট্যসংগঠন হিসেবে স্বপ্নদলের শিল্পদর্শন হচ্ছে উপনিবেশ-উত্তরকালে ঐতিহ্যের ধারায় বাঙালির নিজস্ব আধুনিক নাট্যরীতি ‘বাঙলা নাট্যরীতি’ নির্মাণ। আর ‘বাঙলা নাট্যরীতি’ নির্মাণপ্রয়াসেই স্বপ্নদল উপনিবেশের প্রভাবে ইতঃপূর্বে প্রায় বিবর্তনহীন ঐতিহ্যের নাট্যধারার উপস্থাপনরীতির সঙ্গে, এর স্বীয় বৈশিষ্ট্যসমূহ বজায় রেখেই, বিশ্বনাট্যধারার নানা উপকরণ আত্মীকরণের মাধ্যমে আধুনিক দর্শকের রুচির উপযোগী নিজস্ব আধুনিক বাঙলা নাট্যরীতির প্রযোজনা নির্মাণকৃত্য অব্যাহত রেখেছে। অদ্যাবধি স্বপ্নদলের ১৭টি প্রযোজনার প্রায় সবকটিতেই এ দর্শনের ব্যবহারিকরূপ সৃজনের লক্ষ্যে গবেষণাগার নাট্যরীতিতে বর্ণিত চতুর্বিধ ধাপ অর্থাৎ মঞ্চকেন্দ্রিক নাট্যগবেষণার ধারাবাহিকতায় নির্দেশকের সুনির্দিষ্ট শিল্পতত্ত্বের আলোকে এর ক্রমান্বয়মূহের প্রয়োগগত চর্যা, নিরীক্ষাসমূহের ক্রমবর্জন-সংশোধন-বিচার-সংকলন এবং মঞ্চে এর ব্যবহারিক প্রয়োগপ্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। সুতরাং বলা যায়, সুনির্দিষ্ট শিল্পতত্ত্ব, শিল্পতত্ত্বের ক্রমসংশোধন, গবেষণাগারে ক্রমচর্যা, নিরন্তর সংযোজন-বিয়োজন, ভাঙা-গড়া, গ্রহণ-বর্জন এবং যাচাই-বাছাইয়ের মাধ্যমে স্বীকৃত বৈজ্ঞানিক মঞ্চগবেষণা কৌশল ‘গবেষণাগার নাট্যরীতি’ অবলম্বনপূর্বক নির্মিত হয়েছে স্বপ্নদলের প্রযোজনাসমূহ।

Image may contain: 4 people, people sitting, people standing and child

প্রসঙ্গত, স্বপ্নদলের প্রথম প্রযোজনা ‘ত্রিংশ শতাব্দী’ থেকে শুরু করে উল্লেখযোগ্য প্রযোজনাসমূহে (যেমন: ‘চিত্রাঙ্গদা’, ‘ডাকঘর’, ‘হরগজ’, ‘জাদুর প্রদীপ’, ‘স্পার্টাকাস’, ‘পদ্মগোখরো’, ‘হেলেন কেলার’ প্রভৃতি) এ গবেষণাগারপ্রসূত উপস্থাপন দর্শকের কাছে ব্যাপক প্রশংসা পেয়েছে। উপরন্তু, বর্ণিত নাট্যরীতিতে নির্মিত ‘ত্রিংশ শতাব্দী’, ‘হেলেন কেলার’, ‘চিত্রাঙ্গদা’, ‘স্পার্টাকাস’ প্রভৃতি প্রযোজনা দেশের পাশাপাশি দেশের বাইরে জাপান (ফেস্টিভ্যাল/টোকিও ২০১৮ এবং টোকিওস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের আমন্ত্রণে ২০১৮), ইংল্যান্ড (এ সিজন অব বাঙলা ড্রামা ২০১৫) এবং ভারতের রাষ্ট্রীয় নট্যোৎসব ন্যাশনাল স্কুল অব ড্রামা (এনএসডি)-র ‘ভারত রঙ মহোৎসব ২০১৫’সহ ভারতের নানা উৎসবে আমন্ত্রিত প্রদর্শনী মঞ্চায়ন ও দর্শকের গ্রহণযোগ্যতার মধ্য দিয়ে বহির্বিশ্বেও এসব গবেষণার সাফল্য প্রমাণিত হয়েছে।

পরিশেষে বলা যায়, আধুনিককালে ব্যক্তির যেমন তেমনি একটি নাট্যসংগঠনেরও সুনির্দিষ্ট দর্শন থাকা বাঞ্ছনীয়। সে বিচারে সুনির্দিষ্ট শিল্পতত্ত্বের অধিকারী এবং উপনিবেশ-উত্তরকালে বাঙালির নিজস্ব নাট্যাঙ্গিক ‘বাঙলা নাট্যরীতি’ বিনির্মাণে ব্রতী নাট্যসংগঠন স্বপ্নদল বাঙলা তথা বিশ্বনাট্যধারার গর্বিত উত্তরাধিকার হিসেবে দলের আগামীর পথচলায়ও গবেষণাগার নাট্যরীতিতে নাট্যসৃজনের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখার বিনীত অথচ দীপ্তপ্রত্যয় ঘোষণা করে।

জাহিদ রিপন: প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান সম্পাদক, স্বপ্নদল
ই-মেইল: zahidrepon@gmail.com

The post গবেষণাগার নাট্যরীতি এবং স্বপ্নদলের নাট্যসৃজন appeared first on মিডিয়া খবর.

]]>
https://www.mediakhabor.com/%e0%a6%97%e0%a6%ac%e0%a7%87%e0%a6%b7%e0%a6%a3%e0%a6%be%e0%a6%97%e0%a6%be%e0%a6%b0-%e0%a6%a8%e0%a6%be%e0%a6%9f%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%b0%e0%a7%80%e0%a6%a4%e0%a6%bf-%e0%a6%8f%e0%a6%ac%e0%a6%82/feed/ 0
iPhone 6 Plus review https://www.mediakhabor.com/iphone-6-plus-review/ https://www.mediakhabor.com/iphone-6-plus-review/#respond Mon, 24 Nov 2014 18:58:10 +0000 http://themes.tielabs.com/sahifa5/?p=135 Don’t act so surprised, Your Highness. You weren’t on any mercy mission this time. Several transmissions were beamed to this ship by Rebel spies. I want to know what happened to the plans they sent you. In my experience, there is no such thing as luck. Partially, but it also obeys your commands. I want …

The post iPhone 6 Plus review appeared first on মিডিয়া খবর.

]]>
Don’t act so surprised, Your Highness. You weren’t on any mercy mission this time. Several transmissions were beamed to this ship by Rebel spies. I want to know what happened to the plans they sent you. In my experience, there is no such thing as luck. Partially, but it also obeys your commands. I want to come with you to Alderaan. There’s nothing for me here now. I want to learn the ways of the Force and be a Jedi, like my father before me. The more you tighten your grip, Tarkin, the more star systems will slip through your fingers.

We hire people who want to make the best things in the world. -Steve Jobs

She must have hidden the plans in the escape pod. Send a detachment down to retrieve them, and see to it personally, Commander. There’ll be no one to stop us this time! You’re all clear, kid. Let’s blow this thing and go home! Partially, but it also obeys your commands.

  • Dantooine. They’re on Dantooine.
  • He is here.
  • Don’t underestimate the Force.

lead-iphone6plus

I care. So, what do you think of her, Han? A tremor in the Force. The last time I felt it was in the presence of my old master. But with the blast shield down, I can’t even see! How am I supposed to fight? Obi-Wan is here. The Force is with him. But with the blast shield down, I can’t even see! How am I supposed to fight? You are a part of the Rebel Alliance and a traitor! Take her away!


Still, she’s got a lot of spirit. I don’t know, what do you think? What!? I don’t know what you’re talking about. I am a member of the Imperial Senate on a diplomatic mission to Alderaan– What good is a reward if you ain’t around to use it? Besides, attacking that battle station ain’t my idea of courage. It’s more like…suicide.
You don’t believe in the Force, do you? Obi-Wan is here. The Force is with him. I call it luck. Look, I can take you as far as Anchorhead. You can get a transport there to Mos Eisley or wherever you’re going. What?! The Force is strong with this one. I have you now.

  1. I care. So, what do you think of her, Han?
  2. You mean it controls your actions?
  3. Look, I can take you as far as Anchorhead. You can get a transport there to Mos Eisley or wherever you’re going.
  4. I’m trying not to, kid.

You’re all clear, kid. Let’s blow this thing and go home! But with the blast shield down, I can’t even see! How am I supposed to fight? Alderaan? I’m not going to Alderaan. I’ve got to go home. It’s late, I’m in for it as it is.

The post iPhone 6 Plus review appeared first on মিডিয়া খবর.

]]>
https://www.mediakhabor.com/iphone-6-plus-review/feed/ 0
20 Ways To Sell Your Product Faster https://www.mediakhabor.com/20-ways-to-sell-your-product-faster/ https://www.mediakhabor.com/20-ways-to-sell-your-product-faster/#respond Fri, 24 Oct 2014 15:31:21 +0000 http://themes.tielabs.com/sahifa5/?p=43 Don’t act so surprised, Your Highness. You weren’t on any mercy mission this time. Several transmissions were beamed to this ship by Rebel spies. I want to know what happened to the plans they sent you. In my experience, there is no such thing as luck. Partially, but it also obeys your commands. I want …

The post 20 Ways To Sell Your Product Faster appeared first on মিডিয়া খবর.

]]>
Don’t act so surprised, Your Highness. You weren’t on any mercy mission this time. Several transmissions were beamed to this ship by Rebel spies. I want to know what happened to the plans they sent you. In my experience, there is no such thing as luck. Partially, but it also obeys your commands. I want to come with you to Alderaan. There’s nothing for me here now. I want to learn the ways of the Force and be a Jedi, like my father before me. The more you tighten your grip, Tarkin, the more star systems will slip through your fingers.

Still, she’s got a lot of spirit. I don’t know, what do you think? What!? I don’t know what you’re talking about. I am a member of the Imperial Senate on a diplomatic mission to Alderaan– What good is a reward if you ain’t around to use it? Besides, attacking that battle station ain’t my idea of courage. It’s more like…suicide.

You don’t believe in the Force, do you? Obi-Wan is here. The Force is with him. I call it luck. Look, I can take you as far as Anchorhead. You can get a transport there to Mos Eisley or wherever you’re going. What?! The Force is strong with this one. I have you now.

We hire people who want to make the best things in the world. -Steve Jobs

She must have hidden the plans in the escape pod. Send a detachment down to retrieve them, and see to it personally, Commander. There’ll be no one to stop us this time! You’re all clear, kid. Let’s blow this thing and go home! Partially, but it also obeys your commands.

  • Dantooine. They’re on Dantooine.
  • He is here.
  • Don’t underestimate the Force.

5825871567_4d477202ce_b

I care. So, what do you think of her, Han? A tremor in the Force. The last time I felt it was in the presence of my old master. But with the blast shield down, I can’t even see! How am I supposed to fight? Obi-Wan is here. The Force is with him. But with the blast shield down, I can’t even see! How am I supposed to fight? You are a part of the Rebel Alliance and a traitor! Take her away!


Still, she’s got a lot of spirit. I don’t know, what do you think? What!? I don’t know what you’re talking about. I am a member of the Imperial Senate on a diplomatic mission to Alderaan– What good is a reward if you ain’t around to use it? Besides, attacking that battle station ain’t my idea of courage. It’s more like…suicide.
You don’t believe in the Force, do you? Obi-Wan is here. The Force is with him. I call it luck. Look, I can take you as far as Anchorhead. You can get a transport there to Mos Eisley or wherever you’re going. What?! The Force is strong with this one. I have you now.

  1. I care. So, what do you think of her, Han?
  2. You mean it controls your actions?
  3. Look, I can take you as far as Anchorhead. You can get a transport there to Mos Eisley or wherever you’re going.
  4. I’m trying not to, kid.

Revenge of the Sith

post-imageI can’t get involved! I’ve got work to do! It’s not that I like the Empire, I hate it, but there’s nothing I can do about it right now. It’s such a long way from here. Leave that to me. Send a distress signal, and inform the Senate that all on board were killed. I’m surprised you had the courage to take the responsibility yourself. No! Alderaan is peaceful. We have no weapons. You can’t possibly…

Your eyes can deceive you. Don’t trust them. He is here. What?! Hokey religions and ancient weapons are no match for a good blaster at your side, kid. I’m trying not to, kid.

I’m trying not to, kid. I have traced the Rebel spies to her. Now she is my only link to finding their secret base. He is here. You are a part of the Rebel Alliance and a traitor! Take her away! Dantooine. They’re on Dantooine.

 

Still, she’s got a lot of spirit. I don’t know, what do you think? What!? I don’t know what you’re talking about. I am a member of the Imperial Senate on a diplomatic mission to Alderaan– What good is a reward if you ain’t around to use it? Besides, attacking that battle station ain’t my idea of courage. It’s more like…suicide.

Hey, Luke! May the Force be with you. Kid, I’ve flown from one side of this galaxy to the other. I’ve seen a lot of strange stuff, but I’ve never seen anything to make me believe there’s one all-powerful Force controlling everything. There’s no mystical energy field that controls my destiny. It’s all a lot of simple tricks and nonsense. Remember, a Jedi can feel the Force flowing through him. He is here. Ye-ha! I have traced the Rebel spies to her. Now she is my only link to finding their secret base.

You don’t believe in the Force, do you? Obi-Wan is here. The Force is with him. I call it luck. Look, I can take you as far as Anchorhead. You can get a transport there to Mos Eisley or wherever you’re going. What?! The Force is strong with this one. I have you now.

 

9FybtVFNSEOxogGzIvHJ_IMG_2226

 

Hey, Luke! May the Force be with you. Kid, I’ve flown from one side of this galaxy to the other. I’ve seen a lot of strange stuff, but I’ve never seen anything to make me believe there’s one all-powerful Force controlling everything. There’s no mystical energy field that controls my destiny. It’s all a lot of simple tricks and nonsense. Remember, a Jedi can feel the Force flowing through him. He is here. Ye-ha! I have traced the Rebel spies to her. Now she is my only link to finding their secret base.

Oh God, my uncle. How am I ever gonna explain this? Look, I ain’t in this for your revolution, and I’m not in it for you, Princess. I expect to be well paid. I’m in it for the money. A tremor in the Force. The last time I felt it was in the presence of my old master.

All right. Well, take care of yourself, Han. I guess that’s what you’re best at, ain’t it? Alderaan? I’m not going to Alderaan. I’ve got to go home. It’s late, I’m in for it as it is. The plans you refer to will soon be back in our hands.

 

WOW, Nice photo !
WOW, Nice photo !

I need your help, Luke. She needs your help. I’m getting too old for this sort of thing. Oh God, my uncle. How am I ever gonna explain this? Hey, Luke! May the Force be with you. No! Alderaan is peaceful. We have no weapons. You can’t possibly… As you wish. Look, I can take you as far as Anchorhead. You can get a transport there to Mos Eisley or wherever you’re going.

I suggest you try it again, Luke. This time, let go your conscious self and act on instinct. Dantooine. They’re on Dantooine. You’re all clear, kid. Let’s blow this thing and go home! I’m surprised you had the courage to take the responsibility yourself. I’m trying not to, kid.

I care. So, what do you think of her, Han? Don’t underestimate the Force. I don’t know what you’re talking about. I am a member of the Imperial Senate on a diplomatic mission to Alderaan– I have traced the Rebel spies to her. Now she is my only link to finding their secret base.

You’re all clear, kid. Let’s blow this thing and go home! But with the blast shield down, I can’t even see! How am I supposed to fight? Alderaan? I’m not going to Alderaan. I’ve got to go home. It’s late, I’m in for it as it is.

The post 20 Ways To Sell Your Product Faster appeared first on মিডিয়া খবর.

]]>
https://www.mediakhabor.com/20-ways-to-sell-your-product-faster/feed/ 0
The Secrets Of Rich And Famous Writers https://www.mediakhabor.com/the-secrets-of-rich-and-famous-writers/ https://www.mediakhabor.com/the-secrets-of-rich-and-famous-writers/#respond Fri, 24 Oct 2014 15:30:53 +0000 http://themes.tielabs.com/sahifa5/?p=41 Don’t act so surprised, Your Highness. You weren’t on any mercy mission this time. Several transmissions were beamed to this ship by Rebel spies. I want to know what happened to the plans they sent you. In my experience, there is no such thing as luck. Partially, but it also obeys your commands. I want …

The post The Secrets Of Rich And Famous Writers appeared first on মিডিয়া খবর.

]]>
Don’t act so surprised, Your Highness. You weren’t on any mercy mission this time. Several transmissions were beamed to this ship by Rebel spies. I want to know what happened to the plans they sent you. In my experience, there is no such thing as luck. Partially, but it also obeys your commands. I want to come with you to Alderaan. There’s nothing for me here now. I want to learn the ways of the Force and be a Jedi, like my father before me. The more you tighten your grip, Tarkin, the more star systems will slip through your fingers.

Still, she’s got a lot of spirit. I don’t know, what do you think? What!? I don’t know what you’re talking about. I am a member of the Imperial Senate on a diplomatic mission to Alderaan– What good is a reward if you ain’t around to use it? Besides, attacking that battle station ain’t my idea of courage. It’s more like…suicide.

You don’t believe in the Force, do you? Obi-Wan is here. The Force is with him. I call it luck. Look, I can take you as far as Anchorhead. You can get a transport there to Mos Eisley or wherever you’re going. What?! The Force is strong with this one. I have you now.

We hire people who want to make the best things in the world. -Steve Jobs

She must have hidden the plans in the escape pod. Send a detachment down to retrieve them, and see to it personally, Commander. There’ll be no one to stop us this time! You’re all clear, kid. Let’s blow this thing and go home! Partially, but it also obeys your commands.

  • Dantooine. They’re on Dantooine.
  • He is here.
  • Don’t underestimate the Force.

5825871567_4d477202ce_b

I care. So, what do you think of her, Han? A tremor in the Force. The last time I felt it was in the presence of my old master. But with the blast shield down, I can’t even see! How am I supposed to fight? Obi-Wan is here. The Force is with him. But with the blast shield down, I can’t even see! How am I supposed to fight? You are a part of the Rebel Alliance and a traitor! Take her away!


Still, she’s got a lot of spirit. I don’t know, what do you think? What!? I don’t know what you’re talking about. I am a member of the Imperial Senate on a diplomatic mission to Alderaan– What good is a reward if you ain’t around to use it? Besides, attacking that battle station ain’t my idea of courage. It’s more like…suicide.
You don’t believe in the Force, do you? Obi-Wan is here. The Force is with him. I call it luck. Look, I can take you as far as Anchorhead. You can get a transport there to Mos Eisley or wherever you’re going. What?! The Force is strong with this one. I have you now.

  1. I care. So, what do you think of her, Han?
  2. You mean it controls your actions?
  3. Look, I can take you as far as Anchorhead. You can get a transport there to Mos Eisley or wherever you’re going.
  4. I’m trying not to, kid.

Revenge of the Sith

post-imageI can’t get involved! I’ve got work to do! It’s not that I like the Empire, I hate it, but there’s nothing I can do about it right now. It’s such a long way from here. Leave that to me. Send a distress signal, and inform the Senate that all on board were killed. I’m surprised you had the courage to take the responsibility yourself. No! Alderaan is peaceful. We have no weapons. You can’t possibly…

Your eyes can deceive you. Don’t trust them. He is here. What?! Hokey religions and ancient weapons are no match for a good blaster at your side, kid. I’m trying not to, kid.

I’m trying not to, kid. I have traced the Rebel spies to her. Now she is my only link to finding their secret base. He is here. You are a part of the Rebel Alliance and a traitor! Take her away! Dantooine. They’re on Dantooine.

 

Still, she’s got a lot of spirit. I don’t know, what do you think? What!? I don’t know what you’re talking about. I am a member of the Imperial Senate on a diplomatic mission to Alderaan– What good is a reward if you ain’t around to use it? Besides, attacking that battle station ain’t my idea of courage. It’s more like…suicide.

Hey, Luke! May the Force be with you. Kid, I’ve flown from one side of this galaxy to the other. I’ve seen a lot of strange stuff, but I’ve never seen anything to make me believe there’s one all-powerful Force controlling everything. There’s no mystical energy field that controls my destiny. It’s all a lot of simple tricks and nonsense. Remember, a Jedi can feel the Force flowing through him. He is here. Ye-ha! I have traced the Rebel spies to her. Now she is my only link to finding their secret base.

You don’t believe in the Force, do you? Obi-Wan is here. The Force is with him. I call it luck. Look, I can take you as far as Anchorhead. You can get a transport there to Mos Eisley or wherever you’re going. What?! The Force is strong with this one. I have you now.

 

9FybtVFNSEOxogGzIvHJ_IMG_2226

 

Hey, Luke! May the Force be with you. Kid, I’ve flown from one side of this galaxy to the other. I’ve seen a lot of strange stuff, but I’ve never seen anything to make me believe there’s one all-powerful Force controlling everything. There’s no mystical energy field that controls my destiny. It’s all a lot of simple tricks and nonsense. Remember, a Jedi can feel the Force flowing through him. He is here. Ye-ha! I have traced the Rebel spies to her. Now she is my only link to finding their secret base.

Oh God, my uncle. How am I ever gonna explain this? Look, I ain’t in this for your revolution, and I’m not in it for you, Princess. I expect to be well paid. I’m in it for the money. A tremor in the Force. The last time I felt it was in the presence of my old master.

All right. Well, take care of yourself, Han. I guess that’s what you’re best at, ain’t it? Alderaan? I’m not going to Alderaan. I’ve got to go home. It’s late, I’m in for it as it is. The plans you refer to will soon be back in our hands.

 

WOW, Nice photo !
WOW, Nice photo !

I need your help, Luke. She needs your help. I’m getting too old for this sort of thing. Oh God, my uncle. How am I ever gonna explain this? Hey, Luke! May the Force be with you. No! Alderaan is peaceful. We have no weapons. You can’t possibly… As you wish. Look, I can take you as far as Anchorhead. You can get a transport there to Mos Eisley or wherever you’re going.

I suggest you try it again, Luke. This time, let go your conscious self and act on instinct. Dantooine. They’re on Dantooine. You’re all clear, kid. Let’s blow this thing and go home! I’m surprised you had the courage to take the responsibility yourself. I’m trying not to, kid.

I care. So, what do you think of her, Han? Don’t underestimate the Force. I don’t know what you’re talking about. I am a member of the Imperial Senate on a diplomatic mission to Alderaan– I have traced the Rebel spies to her. Now she is my only link to finding their secret base.

You’re all clear, kid. Let’s blow this thing and go home! But with the blast shield down, I can’t even see! How am I supposed to fight? Alderaan? I’m not going to Alderaan. I’ve got to go home. It’s late, I’m in for it as it is.

The post The Secrets Of Rich And Famous Writers appeared first on মিডিয়া খবর.

]]>
https://www.mediakhabor.com/the-secrets-of-rich-and-famous-writers/feed/ 0