Categories
চলচ্চিত্র

অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন এখন কোয়ারেন্টিনে

গত ১৪ মার্চ থেকে সুন্দরবনে শুরু হয়েছিল আবু রায়হান জুয়েল পরিচালিত ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’ সিনেমার শুটিং। মাঝপথে আটতে থাকার কারণে দলটি ঢাকায় ফিরতে পারছিল না। ফেরার অনুমতি পাবার পর অবশেষে ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’ সিনেমার সকল কলাকুশলী এখন ঢাকায়। ঢাকয় ফিরে তারা কোয়ারেন্টিনে চলে গেছেন।

সিনেমাটির নায়িকা পরীমনি বললেন, অবশেষে বাসায় ফিরলাম। এখন ঘরেই থাকবো।

‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’ সিনেমার আরেক অভিনেতা কচি খন্দকার একটি গনমাধ্যমে জানিয়েছেন, গতকাল সন্ধ্যায় ঢাকায় ফিরেছি। আমি সুস্থ আছি। কিন্তু পরিবার ও সবার নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকছি। শুধু আমি নই, সিনেমার পুরো টিম ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টিনে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

প্রখ্যাত লেখক মুহাম্মদ জাফর ইকবালের ‘রাতুলের রাত রাতুলের দিন’ অবলম্বনে নির্মিত হচ্ছে এটি। প্রথমে চলচ্চিত্রটির নাম ছিল ‘নসু ডাকাত কুপোকাত’ পরবর্তীতে নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’। এর চিত্রনাট্য রচনা করেছেন জাকারিয়া সৌখিন।

এ ইউনিটে সিয়াম আহমেদ, পরীমনি, তানভীরের সঙ্গে ছবিটিতে ২৫ জন শিশুশিল্পীসহ মোট ১১০ জন সদস্য ছিলেন। করোনার কারণে পুরো শুটিং ইউনিট আটকা পড়েছিলও সুন্দরবনে। সমুদ্রে জাহাজে ভেসেও কেটেছে তাদের দিনগুলো। রোববার (৫ এপ্রিল) ঢাকায় ফিরেছেন ‘অ্যাডভেঞ্চার অব সুন্দরবন’ সিনেমার নির্মাতা, নায়ক, নায়িকা ও অন্যান্য কলাকুশলীরা।

উল্লেখ্য, এ সিনেমায় জুটি বেঁধে আভিনয় করছেন সিয়াম-পরীমনি। এছাড়া অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করছেন—শহীদুল আলম সাচ্চু, আজাদ আবুল কালাম, মুনিরা মিঠু, কচি খন্দকার, আশিষ খন্দকারসহ ১৮ জন শিশুশিল্পী। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে সরকারি অনুদানে নির্মিত হচ্ছে এটি।